• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

পাল্টা সভার ঘোষণা হতেই সরছে ছাউনি

College Field
সরানো হচ্ছে শামিয়ানার কাঠামো। মেদিনীপুরে। নিজস্ব চিত্র

২১ জুলাইয়ের মঞ্চ থেকে মেদিনীপুরে নরেন্দ্র মোদীর পাল্টা সভার কথা ঘোষণা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূল নেত্রী জানিয়েছেন, ২৮ জুলাই মেদিনীপুরে সেই কলেজ-কলেজিয়েট স্কুলের মাঠেই  তৃণমূলের সভা হবে, সেখানে মোদী সভা করে গিয়েছেন। থাকবেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়, পার্থ চট্টোপাধ্যায়, শুভেন্দু অধিকারী, ফিরহাদ হাকিম, কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতার ওই ঘোষণার পরপরই মেদিনীপুরের কলেজ-কলেজিয়েট স্কুল মাঠ থেকে ভেঙে পড়া ছাউনি-সহ বিজেপির সভার যাবতীয় সরঞ্জাম সরানোর নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ-প্রশাসন। বিজেপি সূত্রে খবর, দ্রুতই সব সরানোর নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেই মতো শনিবার বিকেল থেকে ছাউনি খোলার কাজ শুরু হয়েছে। এক-দু’দিনের মধ্যেই মাঠ পরিষ্কার হয়ে যাবে।

ভেঙে পড়া ছাউনি কবে সরানো হবে সেই নিয়ে শুক্রবার পর্যন্ত সংশয় ছিল। শনিবার ধর্মতলায় শহিদ সমাবেশের মঞ্চে মমতা ঘোষণা করেন, “২৮ জুলাই ওই মেদিনীপুরের মাঠেই, যেখানে বিজেপি প্যান্ডেল তৈরি করতে পারেনি, প্যান্ডেল ভেঙে গিয়েছে, মেদিনীপুরের ওই মাঠেই সভা হবে।’’ এরপরই ছবিটা বদলে যায়। বিকেল থেকে তড়িঘড়ি ছাউনি সরানোর কাজ শুরু হয়েছে। এ নিয়েও পুলিশ ও বিজেপির মধ্যে চাপানউতোরও শুরু হয়েছে। বিজেপির দাবি, তৃণমূলনেত্রীর ওই ঘোষণার পর থেকেই মাঠ থেকে ছাউনি সরাতে তৎপর হয়েছে পুলিশ- প্রশাসন। অথচ, এতদিন অনেক বলেকয়েও ওই ছাউনিতে হাত দেওয়া যাচ্ছিল না। উল্টে পুলিশ তদন্তের কথা বলে ছাউনি খুলতে নিষেধ করেছিল। মাঠে পুলিশও মোতায়েন করা হয়েছিল।

বিজেপির রাজ্য সম্পাদক তুষার মুখোপাধ্যায়ের কথায়, “তৃণমূলের পাল্টা সভা হবে। তাই এখন তড়িঘড়ি ভেঙে পড়া ছাউনি সরানোর নির্দেশ দেওয়া হচ্ছে। অথচ, আমরা এতদিন ধরে যখন ছাউনি সরানোর অনুমতি দেওয়ার কথা বলছিলাম, তখন সেই কথা পুলিশ-প্রশাসনের কানে যাচ্ছিল না। মাঠ থেকে ইলেকট্রনিক্স সরঞ্জাম বের করতেও বাধা দেওয়া হয়েছে। ঝড়-জলে অনেক সরঞ্জাম মাঠে পড়ে থেকেই নষ্ট হয়েছে।’’ পুলিশ অবশ্য বিজেপির অভিযোগ মানতে নারাজ। জেলা পুলিশের এক সূত্র দাবি করেছে, শুরুর দিকে একাধিক তদন্তকারী সংস্থা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করছিল। নমুনা সংগ্রহ করছিল। তাই দুর্ঘটনাস্থল ঘিরে ফেরা হয়েছিল। এ দিন পশ্চিম মেদিনীপুরের পুলিশ সুপার অলোক রাজোরিয়া বলেন, “ছাউনি খোলার ক্ষেত্রে কোনও বাধা নেই। ভেঙে পড়া ছাউনিও সরাতে বলা হয়েছে।’’ পুলিশ জানাচ্ছে, ভেঙে পড়া ছাউনির কিছু সরঞ্জাম গচ্ছিত রাখতে বলা হয়েছে। ডেকরেটর সংস্থাই ওই সরঞ্জাম গচ্ছিত রাখবে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন