• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

নারদ-কর্তা ম্যাথুকে জিজ্ঞাসাবাদ

অভিযুক্তদের বাড়ি তল্লাশি চায় সিবিআই

Narada
প্রতীকী ছবি।

নারদ কাণ্ডে অভিযুক্ত রাজ্যের শাসক দলের নেতা-মন্ত্রী-সাংসদদের বাড়িতে এ বার তল্লাশি অভিযান চালাতে চায় সিবিআই।

এ জন্য বৃহস্পতিবার সিবিআইয়ের বিশেষ আদালতের অনুমতি চেয়েছেন তদন্তকারীরা। নারদ কর্তা ম্যাথু স্যামুয়েলকে সঙ্গে নিয়ে অভিযুক্তদের বাড়ি ও অফিসে গিয়ে তারা ঘুষ-কাণ্ডের পুনর্গঠন করতে চায় বলেও এ দিন আদালতকে জানিয়েছে তদন্তকারী সংস্থাটি। এ কাজের জন্য কলকাতা পুলিশেরও সাহায্য চেয়েছে সিবিআই।

সিবিআই জানিয়েছে, নিজেকে বিদেশি সংস্থার প্রতিনিধি হিসেবে পরিচয় দিয়ে ২০১৪-র লোকসভা নির্বাচনের আগে এই রাজ্যে আসেন ম্যাথু। রাজ্যে ওই বিদেশি সংস্থার কাজ পাইয়ে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে রাজ্যের বেশ কিছু প্রভাবশালী ম্যাথুর কাছ থেকে টাকা নেন। টাকা দেওয়ার সেই ছবি ম্যাথু গোপন মোবাইলে তুলে রাখেন। যার মধ্যে ১৩ জন প্রভাবশালীর ভিডিও ফুটেজ প্রকাশ করেন ২০১৬ সালের জানুয়ারিতে। হইচই পড়ে যায় সেই ঘটনায়। আদালত পরীক্ষা করিয়ে সেই ফুটেজ আসল বলে রায় দেওয়ার পরে তদন্তে নামে সিবিআই ও ইডি। রাজ্যের মন্ত্রী-সাংসদ ও এক পুলিশ অফিসার মিলিয়ে ১৩ জন প্রভাবশালীর নাম রয়েছে অভিযুক্তের প্রাথমিক তালিকায়।

সিবিআইয়ের আশঙ্কা, রাজ্যের শাসক দলের এই সব প্রভাবশালী নেতাদের বাড়িতে তল্লাশি করতে গেলে বিরোধিতার মুখে পড়তে হতে পারে। সে জন্যই সঙ্গে পুলিশ নিয়ে যেতে চায় তারা। সিবিআই কর্তাদের কথায়, তল্লা‌শির সময়ে বিশেষ নিরাপত্তার দরকার। তা ছাড়া আদালতের অনুমতি না-নিয়ে তল্লাশিতে গেলে সংশ্লিষ্ট নেতা-মন্ত্রীরাও আপত্তি জানাতে পারেন। ইতিমধ্যে ৩ জন প্রভাবশালীকে নিজেদের অফিসে ডেকে জেরা করেছে সিবিআই। ইডি-ও ৩ জনকে ডেকে জেরা করেছে। রাজ্যের আরও তিন মন্ত্রীকে জেরার জন্য আগামী মাসে ডেকে পাঠিয়েছে ইডি। এক মন্ত্রী ও সাংসদকে তলব করেছে সিবিআই-ও।

বুধবার ম্যাথু কলকাতায় এসে পর পর দু’দিন সিবিআইয়ের জেরার মুখে পড়েন। ল্যাপটপ ও মোবাইল ব্যবহার করে তিনি কী ভাবে নেতা-মন্ত্রীদের টাকা দেওয়ার ভিডিও ছবি তুলেছিলেন, বৃহস্পতিবার সকালে সিবিআইয়ের কর্তাদের সামনে ম্যাথু তা হাতেকলমে দেখান। বুধবার তিনি যখন এসেছিলেন, নারদ কাণ্ডে ব্যবহৃত মোবাইল ও ল্যাপটপ সঙ্গে আনেননি। সিবিআইয়ের নির্দেশে বৃহস্পতিবার সকালে দিল্লির বাড়ি থেকে ম্যাথুর গাড়ির চালক সেই মোবাইল ও ল্যাপটপ নিয়ে কলকাতায় উড়ে আসেন। সিবিআই দফতরে সম্পাদিত ও অসম্পাদিত ভিডিও ফুটেজে ১৩ জন মূল অভিযুক্তের পাশাপাশি তাঁদের সহযোগীদেরও এ দিন শনাক্ত করেন নারদ কর্তা।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ম্যাথু দিল্লি ফিরে যান। আদালতের অনুমতি এলে সামনের সপ্তাহে তাঁকে আবার ডেকে পাঠিয়ে ওই পুনর্গঠনের কাজ শুরু করা হবে বলে সিবিআই সূত্রে জানা গিয়েছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন