ফের আত্মঘাতী হলেন চন্দননগরের বন্ধ গোন্দলপাড়া জুটমিলের এক শ্রমিক। বুধবার সকালে স্থানীয় মরান রোডের বাসিন্দা বিক্রম চৌধুরী (৩০) নামে ওই শ্রমিকের ঝুলন্ত দেহ মেলে তাঁর বাড়িতে। এলাকার মানুষ জানিয়েছেন, চার মাস আগে বিয়ে করেছিলেন বিক্রম। কারখানা বন্ধ হওয়ার পর আর সংসার চালাতে পারছিলেন না। এ নিয়ে পরিবারে অশান্তি শুরু হয়েছিল। পুলিশেরও অনুমান, পারিবারিক বিবাদের জেরে তিনি আত্মঘাতী হয়েছেন।

সতেরো দিন আগে, গত ২৪ অগস্ট বিশ্বজিৎ দে ‌নামে ওই জুটমিলেরই এক শ্রমিকের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছিল। মিল বন্ধ থাকায় আর্থিক অনটনের জন্যই তিনি গলায় দড়ি দিয়ে আত্মঘাতী হন ব‌লে তাঁর পরিবারের লোকেরা অভিযোগ করেন। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের খবর, ২০১২ সালে ওই চটকলে যোগ দেন বিক্রম। সেখানকার ‘ফিনিশিং’ বিভাগের কর্মী ছিলেন। গত বছরের ২৭ মে আর্থিক সঙ্কটের কারণ দেখিয়ে মিলে তালা ঝুলিয়ে দেন মালিকপক্ষ। লোকসভা ভোটের সময় দিন কয়েকের জন্য মিল খুললেও ফের বন্ধ হয়। মিল বন্ধের পর থেকে কখ‌নও অপরের টোটো চালাতেন, কখনও মাছ বিক্রি করতেন তিনি। তাতে অবশ্য সংসারের হাল ফেরেনি।