রাজ্যে বিভিন্ন রেল ওভারব্রিজ তৈরির কাজ আটকে থাকার কারণে কী, তা জানতে চাইলেন মুখ্যসচিব মলয় দে। নতুন সমীক্ষা করে কী ভাবে দ্রুত ওই কাজ চালু করা যায়, তা জানাতে রাজ্যের পূর্ত দফতর এবং রেল-কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

নবান্ন সূত্রের খবর, রাজ্যে নতুন ২৪টি নতুন রেল ওভারব্রিজ তৈরির অনুমোদন দেওয়া হয় অনেক দিন আগেই। টাকাও মঞ্জুর করেছে কেন্দ্র। কিন্তু জমির সমস্যা, গাছ সরানোর মতো নানা কারণে ওভারব্রিজ তৈরির কাজ শুরু করা যাচ্ছে না। বারাসত থেকে পেট্রাপোল যাওয়ার রাস্তায় অনেক প্রাচীন গাছ রয়েছে। তা না-কাটলে সেতু গড়া সম্ভব নয়। এই নিয়ে মামলা হওয়ায় কাজ আটকে।

জট কাটাতে কী করণীয়, তা জানতে ২৩ এপ্রিল নবান্নে বৈঠক ডাকেন মুখ্যসচিব। সেখানে ছিলেন পূর্ব, দক্ষিণ-পূর্ব, উত্তর-পূর্ব সীমান্ত রেলের কর্তারা। ছিলেন রাজ্যের পূর্ত, পরিবহণ, পরিবেশ, বন, রাজস্ব দফতরের আধিকারিক ও কেন্দ্রীয় সংস্থা রাইটসের ইঞ্জিনিয়ারেরাও। এক পূর্তকর্তা জানান, মুখ্যসচিব পূর্ত দফতর এবং রেলের কর্তাদের কাছে জানতে চান, রেল ওভারব্রিজ তৈরি করতে দেরি কেন? বলা হয়, ১৪টির ক্ষেত্রে সমস্যা নেই। কিন্তু আটটির ক্ষেত্রে অ্যাপ্রোচ রোডের জমি পেতে সমস্যা হচ্ছে। রেলেরও দিকেও কিছু সমস্যা আছে। সব শুনে মুখ্যসচিব রেল ও পূর্তকর্তাদের বলেন, কী করা যায়, ফের সমীক্ষা করে দেখা হোক। তার পরে দেওয়া হোক রিপোর্ট।