ফের ঘাটালের বিজেপি প্রার্থী ভারতী ঘোষকে জিজ্ঞাসাবাদ করল সিআইডি।

সোমবার জিজ্ঞাসাবাদের পর ভারতী বলেন, ‘‘আমার স্বামীকে সিআইডি নোটিস দিয়েছে। পুরো পরিবারকে ঘরবন্দি করে রাখার চেষ্টা হচ্ছে। সুপ্রিম কোর্টে সব জানানো হয়েছে।’’ আলিপুরদুয়ারে ভারতীর বিরুদ্ধে কথোপকথনের কল ডিটেলস সংক্রান্ত মামলা রয়েছে। সিআইডি সূত্রের খবর, সেই মামলার যোগসূত্রে বিজেপি প্রার্থীর স্বামী এম এ ভি রাজুকে নোটিস দেওয়া হয়েছে। আজ, মঙ্গলবার ভবানীভবনে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে পাঠানো হয়েছে রাজুকে। ভারতী জানিয়েছেন, আজ তাঁকেও জিজ্ঞাসাবাদ করার কথা জানিয়েছিল সিআইডি। কিন্তু প্রচার থাকায় তিনি জিজ্ঞাসাবাদের মুখোমুখি হতে পারবেন না বলে সিআইডিকে জানিয়ে দেন। তবে আলিপুরদুয়ারের মামলায় তাঁর মক্কেলের কোনও যোগ নেই বলেও সুপ্রিম কোর্টে হলফনামা জমা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ভারতীর আইনজীবী পিনাকী ভট্টাচার্য।

এ দিন সকাল সাড়ে ১০টা নাগাদ দাসপুরে প্রাক্তন আইপিএস ভারতীর দাসপুরের বাড়িতে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেন সিআইডির অফিসাররা। দুপুর ২টো পর্যন্ত চলে প্রথম দফার জিজ্ঞাসাবাদ। এরপর ছিল এক ঘণ্টার বিরতি। দুপুর ৩টে থেকে ফের শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ। সাড়ে ৫টা নাগাদ বেরিয়ে যান সিআইডির অফিসারেরা। তবে গত শুক্রবারের মতো এ দিন সিআইডির অফিসারদের গাড়ি পর্যন্ত পৌঁছে দিতে দেখা যায়নি ঘাটালের বিজেপি প্রার্থীকে। এ দিনও সিআইডির বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে দেখা গিয়েছে বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের। তবে গত শুক্রবারের মতো মিছিল হয়নি।

সিআইডির অফিসারার চলে যাওয়ার পর ভারতীর সঙ্গে দেখা করেন বিজেপি নেতা তথা বসিরহাট লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী সায়ন্তন বসু। পরে তিনি বলেন, ‘‘এখানে বিজেপি প্রার্থী জয়ী হবেন। দল পাশে রয়েছে।’’