রেকর্ড সংখ্যক চাকরির অফার এল আইআইটি খড়গপুরে। মাত্র ৬ দিনে ১০০০-এরও বেশি চাকরির প্রস্তাব পেলেন খড়গপুর আইআইটি-র ছাত্র-ছাত্রীরা।

১ ডিসেম্বর থেকে শুরু হওয়া প্লেসমেন্ট শেষে খড়গপুর আইআইটি-র ১০১২ জন ছাত্র চাকরির প্রস্তাব পেলেন দেশ-বিদেশের নানান কোম্পানি থেকে। মোট ১১২টি কোম্পানি তাদের সুযোগ্য কর্মীর খোঁজে এসেছিলেন খড়গপুর আইআইটি-তে।

আইআইটি খড়গপুরের কেরিয়ার ডেভেলপমেন্ট সেন্টার-এর চেয়ারম্যান জি পি রাজাশেখরের কথায়, ''মাত্র ৬ দিনে আমাদের ইনস্টিটিউটের ১০১২জনের চাকরির অফার সত্যিই রেকর্ড করে ফেলল।''

যে ১১২টি কোম্পানি খড়গপুর আইআইটির ছাত্রদের মূলত চাকরির অফার দিয়েছে, তাদের ৪০ শতাংশ আইটি/আইটিইএস কোম্পানি। কোর সেক্টরে ২০ শতাংশ, অ্যানালিটিক্স এবং ই-কমার্সে ১৫ শতাংশ করে এবং ফিনান্সে ১০ শতাংশ। যদিও ম্যানুফ্যাকচারিং, পাওয়ার রিসার্চ এবং অটো মোবাইল সেক্টর থেকেও বেশ কিছু অফার পেয়েছেন খড়গপুর আইআইটির ছাত্র-ছাত্রীরা।

আরও পড়ুন: মুখ্যমন্ত্রীর আঁকা ৫ ছবি সিবিআইকে দিলেন প্রযোজক শ্রীকান্ত মোহতা

তবে সব থেকে বেশি চাকরির অফার দিয়েছে ইএক্সএল সার্ভিস। শুধু এই কোম্পানি  থেকেই ৩৪টি কাজের প্রস্তাব এসেছে। কুয়ালকম, মাইক্রোসফ্ট, অ্যাপল, গুগল-সহ আরও বেশ কিছু কোম্পানি তাদের জন্য সুযোগ্য কর্মীদের বেছে নিয়েছে।

আরও পড়ুন: ডিএ-র দাবিতে ক্ষোভ সর্বত্র, বদলি হওয়া কর্মীদের অভ্যর্থনা নতুন অফিসে

শুধু আইআইটি খড়গপুরই নয়। ক্যাম্পাসিংয়ের পঞ্চম দিনে ১২৮টি কোম্পানি এসেছিল আইআইটি কানপুরে। সে দিনে আইআইটি কানপুরের ৫৫০জন চাকরির অফার পেয়েছেন। অন্যান্য বছরের তুলনায় আইআইটি রুরকি-তেও এসেছে বেশি চাকরির প্রস্তাব।

চাকরির অফার সব থেকে বেশি এসেছে জাপান থেকে। যে ২৩টি বিদেশি কোম্পানি কর্মীর খোঁজে এসেছিল, তাদের ১১টিই জাপানের। আমেরিকা, ব্রিটেন এমনকি ইউরোপিয়ান দেশগুলিও জাপানের ধারে কাছে নেই।

(বাংলার রাজনীতি, বাংলার শিক্ষা, বাংলার অর্থনীতি, বাংলার সংস্কৃতি, বাংলার স্বাস্থ্য, বাংলার আবহাওয়া - পশ্চিমবঙ্গের সব টাটকা খবর আমাদের রাজ্য বিভাগে।)