জঙ্গলমহলের ভোটে নজর নির্বাচন কমিশনের, ষষ্ঠ দফায় ৬৮৩ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী
এ রাজ্যের পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে এবং বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েকেরও একই মত— ভোট শান্তিপূর্ণই হচ্ছে।
central force

বাড়ানো হচ্ছে কেন্দ্রীয় বাহিনী।—ফাইল চিত্র।

লোকসভা নির্বাচনে এ রাজ্যে প্রতি দফাতেই কেন্দ্রীয় বাহিনীর সংখ্যা বাড়ছে। তা সত্ত্বেও আটকানো যাচ্ছে না গোলমাল। অনেক ক্ষেত্রে বুথের ভিতরেও উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ছে। শেষ দু’দফায় ভোটে বাহিনীর ভূমিকায় খুব একটা সন্তুষ্ট হতে পারেননি বিরোধীরা। এমনকি তৃণমূলও প্রতিবাদ জানিয়ে নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছে।

আগামী রবিবার ষষ্ঠ দফায়রাজ্যের ৮ কেন্দ্রে ভোট। তার মধ্যে জঙ্গলমহলের চারটি আসন রয়েছে। মাওবাদী হামলার আশঙ্কায় ওই এলাকায় কেন্দ্রীয় বাহিনীর সংখ্যা বাড়ানো হচ্ছে বলে কমিশন সূত্রে খবর। এখনও পর্যন্ত যা ঠিক আছে বাঁকুড়া, বিষ্ণুপুর, ঘাটাল, ঝাড়গ্রাম, কাঁথি, মেদিনীপুর, পুরুলিয়া এবং তমলুকে ৬৮৩ কোম্পানি বাহিনী মোতায়েন করা হবে। গোলমালের খবর যাতে দ্রুত পাওয়া যায়, ‘কুইক রেসপন্স টিম’-এর সংখ্যাও বাড়ানো হবেসে কারণে।

বিরোধীরা ভোটের সময় হিংসার ঘটনায় সরব হলেও, কমিশন এটাকে বিক্ষিপ্ত ঘটনা হিসাবেই দেখছে। এ রাজ্যের পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবে এবং বিশেষ পর্যবেক্ষক অজয় নায়েকেরও একই মত— ভোট শান্তিপূর্ণই হচ্ছে। কমিশন সূত্রে খবর, ষষ্ঠ দফায় অন্যান্য আসনের থেকে জঙ্গলমহলের কেন্দ্রগুলিতে আটোসাঁটো নিরাপত্তা থাকবে। এ বিষয়ে রাজ্য পুলিশকে ইতিমধ্যেই সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। ভোটারদের মনোবল বাড়াতে জঙ্গলমহল এলাকায় রুট মার্চ শুরু করে দিয়েছে কেন্দ্রীয় বাহিনী। শেষমুহূর্তে আরও কিছু পদক্ষেপ করা হতে পারে বলে কমিশন সূত্রে খবর।

আরও পড়ুন: অহঙ্কারীকে ক্ষমা করে না দেশ, মোদীকে ‘দুর্যোধন’ তোপ প্রিয়ঙ্কার, পাল্টা কটাক্ষ অমিতের​

আরও পড়ুন: পদ্ম ঘিরেই দিন ফেরার স্বপ্ন দেখেন এন্তাজ-নিয়ামতরা, বাতি জ্বালেন জামশেদ ভবনের

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত