কমিশনের দায় মনে করিয়ে নয়া চর্চায় প্রণব
সোমবার সন্ধ্যায় প্রণব দিল্লিতে মুখ্য নির্বাচন কমিশনার তথা নির্বাচন কমিশনারদের প্রশংসা করে বলেছিলেন, ‘‘যদি গণতন্ত্র সফল হয়ে থাকে, তার বড় কারণ হল সুকুমার সেন থেকে বর্তমান নির্বাচন কমিশনার পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনারদের সঠিক ভোট পরিচালনা।’’
pranab

রাজীব গাঁধীর মৃত্যুবার্ষিকীতে নয়াদিল্লির বীরভূমিতে প্রণব মুখোপাধ্যায়। মঙ্গলবার। পিটিআই

নির্বাচন কমিশনের ভূয়সী প্রশংসা করেছিলেন গতকাল। আর আজ ইভিএম কারচুপির অভিযোগ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে সেই কমিশনকেই দায়িত্বের কথা মনে করিয়ে দিয়েছেন প্রণব মুখোপাধ্যায়। যাকে পরস্পরবিরোধী বলেই মনে করছে রাজনৈতিক শিবিরের একাংশ।

সোমবার সন্ধ্যায় প্রণব দিল্লিতে মুখ্য নির্বাচন কমিশনার তথা নির্বাচন কমিশনারদের প্রশংসা করে বলেছিলেন, ‘‘যদি গণতন্ত্র সফল হয়ে থাকে, তার বড় কারণ হল সুকুমার সেন থেকে বর্তমান নির্বাচন কমিশনার পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনারদের সঠিক ভোট পরিচালনা।’’ বিরোধীরা যখন এ বারের ভোটে মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন, তখন বাবুল সুপ্রিয়-সহ বিজেপি’র নেতারা আজ সেই মন্তব্যকে অস্ত্র করেন। সংবিধানের ৩২৪ অনুচ্ছেদে দেওয়া ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়ে পশ্চিমবঙ্গে ভোটপ্রচার এক দিন আগেই বন্ধ করে দিয়েছিল কমিশন। কমিশনের এই সাংবিধানিক ক্ষমতার কথাও মনে করিয়ে দিয়েছিলেন প্রণব। সব মিলিয়ে বিড়ম্বনায় পড়তে হয় কংগ্রেসকে। দলের নেতা রাজীব শুক্ল আজ বলেন, ‘‘প্রণববাবু প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি হিসেবে নিজের মত জানিয়েছেন।’’

এ দিকে প্রণবও আজ লিখিত বিবৃতি দিয়ে বলেন, ‘‘ভোটারদের রায়ে কারচুপির অভিযোগ নিয়ে খবরে আমি উদ্বিগ্ন। ইভিএমের নিরাপত্তা কমিশনের দায়িত্ব। গণতন্ত্রের ভিতকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারে, এমন কোনও জল্পনাকে জায়গা দেওয়া উচিত নয়। জনগণের রায় সমস্ত সন্দেহের ঊর্ধ্বে থাকা উচিত। প্রাতিষ্ঠানিক বিশ্বাসযোগ্যতা নিশ্চিত করার দায়িত্ব এক্ষেত্রে কমিশনের উপরেই বর্তায়। তাদের অবশ্যই তা করতে হবে।’’

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

ঘটনাচক্রে এই বিবৃতি যখন প্রকাশিত হয়, তখন বিরোধী দলের নেতারা মুখ্য নির্বাচন কমিশনারের কাছে। ডেরেক ও’ব্রায়েনরা বিবৃতিটি কমিশনারদের পড়ে শোনান। জবাবে অবশ্য মুখ্য নির্বাচন কমিশনার বাক্য ব্যয় করেননি বলে সূত্রের খবর। পরে কমিশন বিবৃতি দিয়ে ইভিএমে কারচুপির অভিযোগ খারিজ করে।

এখন প্রশ্ন উঠেছে, প্রণবের দু’দিনের মন্তব্য কি পরস্পরবিরোধী নয়? প্রণব কমিশনের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রসঙ্গে সোমবার বলেছিলেন, খারাপ কর্মীরাই যন্ত্রপাতি নিয়ে নালিশ করে। আর আজ বলেছেন, ‘‘কর্মীরাই ঠিক করে, কীভাবে প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থা কাজ করবে।’’

আজ রাজীব গাঁধীর প্রয়াণ দিবসে বীরভূমিতে গিয়ে শ্রদ্ধা জানান প্রণব। কংগ্রেস নেতারা মনে করছেন, গতকালের মন্তব্য থেকে কিছুটা সরে আসতে চাইছেন প্রণব। তবে তাঁর ঘনিষ্ঠ শিবির জানাচ্ছে, গতকাল ও আজকের মন্তব্যের বিরোধ নেই। নির্বাচন কমিশন এখনও পর্যন্ত যা কাজ করেছে, তা প্রশংসার যোগ্য। প্রণব আজ যা বলেছেন, তা গতকালের কথারই পরের ধাপ এবং যুক্তিসঙ্গত। কারণ, কমিশনকে কী করতে হবে, তা-ই মনে করিয়ে দিয়েছেন প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি। তার বেশি কিছু নয়।

প্রসঙ্গত, নাগপুরে আরএসএসের সদর দফতরে এক অনুষ্ঠানে বক্তৃতা দিয়ে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন প্রণব। কংগ্রেস করা, এই পোড় খাওয়া রাজনীতিবিদ ওই অনুষ্ঠানে গেলেন কেন, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। গত এক বছরে এই গুঞ্জনও মাঝেমধ্যেই মাথাচাড়া দিয়েছে যে কোনও দলই সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পেলে প্রণবের মতো কোনও নেতার নাম প্রধানমন্ত্রী পদের জন্য উঠে আসতে পারে কি না।

২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের ফল

আপনার মত