লোকসভা ভোটের ফল এবং তার পরবর্তী পরিস্থিতির পর্যালোচনা করতে শাসকদল তৃণমূলের সব বিধায়ক এবং মন্ত্রীদের বৈঠকে বসার জন্য আহ্বাণ জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামিকাল, সোমবার বিধায়ক এবং মন্ত্রীদের নিয়ে ওই বৈঠক হবে। একইসঙ্গে রাজ্য সরকারের সিদ্ধান্ত, ৭ মে নির্ধারিত থাকা প্রশাসনিক বৈঠক পিছিয়ে হবে ১০ মে।

জনপ্রতিনিধি হিসেবে বিধায়ক এবং মন্ত্রীদের ভূমিকার চুলচেরা বিশ্লেষণ সোমবারের বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী করবেন বলেই প্রশাসনিক মহলের ধারণা। একই সঙ্গে, লোকসভা ভোটের পরে এই বৈঠককে তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করে সংশ্লিষ্ট মহলের আধিকারিকদের ধারণা, বিধায়ক এবং মন্ত্রীদের কাজ এবং তার প্রভাব কী ভাবে স্থানীয় স্তরে পড়েছে, নির্বাচনী ফলাফলের নিরিখে তার বিশ্লেষণও হতে পারে ওই বৈঠকে। সূত্রের খবর, সাংসদদের কয়েক জনও থাকতে পারেন ওই বৈঠকে।

১০ মে প্রশাসনিক বৈঠক করবেন মমতা। ওই বৈঠকে সব জেলাশাসক ছাড়াও যুগ্মসচিব এবং তাঁর উপরের পদমর্যাদার অফিসারেরা বৈঠকে উপস্থিত থাকবেন। গত এক বছরে গোটা রাজ্যে প্রশাসনিক কাজের মূল্যায়ন হবে ওই বৈঠকে।

উদ্দেশ্য হচ্ছে, সরকারি কাজের পরিধি বাড়িয়ে তা একেবারে তৃণমূল স্তর পর্যন্ত পৌঁছে দেওয়া। একাধিক সূত্রের খবর, প্রশাসনিক ক্যালেন্ডারের নিরিখে গত বছর জানুয়ারি মাস থেকে এপ্রিল পর্যন্ত দফতরভিত্তিক কাজের কতটা লক্ষ্যপূরণ হয়েছে, তা সরকারি অনলাইন মাধ্যমে নথিবদ্ধ করার নির্দেশ ইতিমধ্যেই প্রতিটি দফতরকে দেওয়া হয়েছে।