টাইগার হিলে যেতে অনুমতিপত্রের বিষয়টি নিয়ে পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গে কথা বলবেন পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব। শুক্রবার শিলিগুড়িতে এ কথা জানান তিনি। কেন না দার্জিলিং শহরে যানজট নিয়ন্ত্রণের জন্য টাইগার হিলে গাড়ির সংখ্যা প্রতিদিন ৩০০ তে বেঁধে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে আপত্তির কথা জানিয়েছেন বিভিন্ন পর্যটন, পরিবহণ ব্যবসায়ীদের সংগঠন। তাদের দাবি, পর্যটন মরসুমে হাজার পাঁচেক লোক প্রতিদিন টাইগার হিলে যান। নতুন নিয়ম লাগু হলে অনেকেই নিরাশ হবেন। পর্যটন ব্যবসা এবং তার সঙ্গে যুক্ত পরিবহণ, ভ্রমণ সংস্থাগুলো সমস্যা পড়বে। ভ্রমণ, পর্যটন, পরিবহণ, হোটেল মালিকদের তরফে একটি প্রতিনিধি দল আজ, শনিবার পুলিশ সুপারের সঙ্গে দেখাও করতে যাচ্ছে। 

সম্প্রতি দার্জিলিং জেলা পুলিশের তরফে নতুন ট্রাফিক নিয়মের কথা জানানো হয়। তাতে বলা হয়েছে, টাইগার হিলে যাওয়ার ক্ষেত্রে আগের দিন দার্জিলিং সদর ট্রাফিক পুলিশের কাছ থেকে কুপন নিতে হবে গাড়িগুলোকে। দৈনিক ৩০০ গাড়িকে সেই কুপন দেওয়া হবে। ১ সেপ্টেম্বর থেকে নয়া নিয়ম লাগুর কথা রয়েছে। 

এদিন পর্যটনমন্ত্রী বলেন, ‘‘জেলা পুলিশ প্রশাসন খোঁজ খবর করেই করেছে। তবে বিষয়টি নিয়ে যেহেতু অনেকেই সমস্যার কথা বলছেন তাই পুলিশ সুপার, জেলাশাসকের সঙ্গে কথা বলব।’’ মন্ত্রীর কথায়, ছাঙ্গুতে পর্যটকদের অনেক বেশি ঢল। তার পরেও সেখানে গাড়ির সংখ্যা নিয়ন্ত্রণ করা হয়। তাই এখানেও সেটা হতেই পারে। তবে কী ভাবে সেটা হবে প্রwয়োজনে তা নিয়ে আরও আলোচনা করে নেওয়ার পক্ষে মন্ত্রী। দার্জিলিং সদর ট্র্যাফিকের ওসি দর্জি শেরপা বলেন, ‘‘বিষয়টি আপাতত পরীক্ষামূলক ভাবে ১০ দিনের জন্য চালুর কথা ভাবা হয়েছে। কী হয়, তা দেখে নিয়ে পরে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।’’