• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বিসর্জন বিতর্ক রাজনৈতিক ষড়যন্ত্র, বললেন মমতা

mamata
ফাইল চিত্র।

বিসর্জন নিয়ে যে বিতর্ক তোলা হচ্ছে, তাকে ‘রাজনৈতিক ষড়ষন্ত্র’ বলে মন্তব্য করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর প্রশ্ন, ‘‘আমি দুর্গাপুজোর উদ্বোধন করলে বা গণেশপুজোয় অংশ নিলে তখন তাকে তোষণ বলা হয় না কেন? যত সমস্যা ইদ বা মহরম নিয়ে!’’

বুধবার বিকেল থেকে কলকাতার উত্তর থেকে দক্ষিণে একের পর এক দুর্গাপ্রতিমার উদ্বোধনের সময়ে একাধিক মণ্ডপে বিসর্জন–বিতর্কের প্রসঙ্গ তুলে বার্তা দেন মমতা। প্রথমে হরিদেবপুরে একটি পুজোর উদ্বোধন করে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘সহিষ্ণুতা বাংলার সংস্কৃতি। যারা এর মর্যাদা দেয় না, তাদের অশ্রদ্ধা করি বলব না। কিন্তু এটা বলবই যে তাদের ভালবাসি না। যারা বাংলাকে চেনে না, এখানকার ঐতিহ্য জানে না, তাদের জন্য করুণা হয়।’’

প্রসঙ্গটি আরও স্পষ্ট হয় পাম অ্যাভিনিউয়ে আর একটি পুজোমণ্ডপে এসে। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘‘হঠাৎ শুনছি, আমি নাকি কাউকে অ্যাপিজ (তোষণ) করছি। তাই সরকার এ বার বিসর্জনের নিয়ন্ত্রণ-বিধি তৈরি করেছে।’’ তাঁর বক্তব্য, ‘‘অন্য কোনও ধর্মের অনুষ্ঠানের জন্য একদিন দুর্গাপ্রতিমার বিসর্জন বন্ধ থাকতে পারে না? এত কটূক্তি, এত প্রশ্ন কেন? এটা যদি তোষণ করা হয়, তা হলে যতদিন বাঁচব, ততদিন সেই তোষণ আমি করব। আমাকে গুলি করে মারলেও এই কাজ আমি করে যাব। আমার কোনও ভেদ-বিচার নেই। কারণ, এটাই বাংলার সংস্কৃতি, আমার সংস্কৃতি।’’

মমতার অভিযোগ, কিছু লোক নিজেদের স্বার্থে এ সব প্রশ্ন তুলছেন। এটা রাজনৈতিক চক্রান্ত। একাদশীর দিন মহরম থাকায় সে দিন বিসর্জন বন্ধ করার নির্দেশ দিয়ে রাজ্য সরকার যে ‘ভুল’ কিছু করেনি, এ দিনও বারবার সে কথা উল্লেখ করেন মুখ্যমন্ত্রী। তবে আদালতের এ দিনের বিভিন্ন মন্তব্য সম্পর্কে কোনও প্রতিক্রিয়া তিনি জানাতে চাননি।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন