• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

ব্যারাকপুরে ৫০ লাখ টাকার চন্দন গাছ নিয়ে চম্পট দিল চোরেরা

sandal
পড়ে রয়েছে গাছের কিছু অংশ।—নিজস্ব চিত্র।

এত দিন খাস বিশ্বভারতীর ক্যাম্পাসের মধ্যে থাকা চন্দন গাছের উপর ছিল চোরেদের নজর। এ বার ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলেও হানা দিল চোরেরা। শিল্পাঞ্চলের বড় কাঠালিয়ায় একটি বনেদি বাড়ির মধ্যে থাকা বহু পুরনো দুর্মূল্য শ্বেত চন্দন গাছ নিয়ে চম্পট দিল চোরের দল। গাছ দু’টির আনুমানিক বাজার মূল্য লাখ পঞ্চাশ টাকা।

পুলিশ সূত্রে খবর, বড় কাঠালিয়ার বাসিন্দা দেব নারায়ণ সিংহ রায়ের বাড়িতে ছিল দু’টি শ্বেত চন্দনের গাছ। দু’টি গাছই আনুমানিক বছর পঁয়তাল্লিশের পুরনো। বাড়ির প্রধান ফটকের এক ধারেই ছিল গাছ দু’টি। ফটকে কোনও তালা ছিল না। বাড়ির মধ্যেই এক পাশে আছে বহু পুরনো শিব মন্দির। পুজোর কাজে ব্যবহার করা হত চন্দন গাছের টুকরো। পরিবারের কর্তা দেবনারায়ণবাবুর ছোট ছেলে স্বস্তিকবাবু বলেন, দিন কয়েক আগেই বাড়ির কয়েকটি অংশে সংস্কারের কাজ হয়েছে। রবিবার রাত আড়াইটে নাগাদ বাড়িতে হানা দেয় চোরের দল। যন্ত্রচালিত করাতের সাহায্যে গাছ দু’টির বেশির ভাগ অংশই কেটে নিয়ে পালায় চোরের দল। পেশায় ব্যবসায়ী স্বস্তিকবাবু অভিযোগ করেন, পরিচিত কোনও লোকই এই চুরির পিছনে আছে। সেই সূত্রেই চন্দন গাছের কথা জানতে পারে চোরেরা।
ঘনবসতিপূর্ণ এলাকার মধ্যে চুরির ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে বাসিন্দাদের মধ্যে। শিল্পাঞ্চলে চন্দন গাছ লুঠের ঘটনায় নড়েচড়ে বসেছেন পুলিশকর্তারাও।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন