ছবিটা ফ্লোরেই যায়নি। তার আগেই সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ‘গুমনামী’ নিয়ে বিতর্কের শেষ নেই।  

একই বিষয় নিয়ে ২০১৬ সালেই একটি পলিটিক্যাল থ্রিলারের কথা ঘোষণা করেছিলেন দিল্লিনিবাসী তথ্যচিত্র পরিচালক অম্লানকুসুম ঘোষ। ছবির নাম ‘সন্ন্যাসী দেশনায়ক’। শুটিং নব্বই শতাংশ শেষ বলেও জানিয়েছেন তিনি। সেখানে গুমনামী বাবার চরিত্রে অভিনয় করেছেন ভিক্টর বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যান্য চরিত্রে রয়েছেন শাশ্বত চট্টোপাধ্যায় এবং লকেট চট্টোপাধ্যায়।  

অম্লানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘‘এই মুহূর্তে আমার ছবির পোস্ট প্রোডাকশন চলছে। সামান্য কিছু অংশের শুটিংই বাকি। দেবজ্যোতি মিশ্র সঙ্গীতের কাজও শেষ করে ফেলেছেন। আমি লখনউয়ে যখন ছিলাম, তখন শুনি সৃজিত একটি ছবি করছেন এই বিষয়ে। আসলে বিষয়টাই এমন যে, আমার বা সৃজিতের পরে যদি আরও কেউ বানাতে চান, অবাক হব না!’’ প্রসঙ্গত, সৃজিতের ছবিটি অনুজ ধর এবং চন্দ্রচূড় ঘোষের বিভিন্ন লেখা অবলম্বনে।

 এই ছবির আগে অম্লান একটি তথ্যচিত্রও বানিয়েছিলেন একই বিষয়ে। পুরোটাই নিজের রিসার্চে। যে তথ্যচিত্র তৈরি হওয়ার লগ্নে, দীর্ঘ বন্ধুত্বের সুবাদে অনুজ ধর এবং চন্দ্রচূড় ঘোষ অম্লানের স্টুডিয়োয় প্রায়ই আসতেন। 

 সৃজিত ‘কাকাবাবুর প্রত্যাবর্তন’-এর রেকির জন্য দক্ষিণ আফ্রিকায় যাবেন কিছু দিনের মধ্যেই। তিনি বললেন, ‘‘ওঁর ছবিটার কথা আমি জানি। একটা বিষয়ের উপরে একাধিক ছবি হতেই পারে। কোনটা আগে হল, কোনটা পরে হবে, তাতেও কিছু যায় আসে না। দর্শক কোনটাকে মনে রাখছেন, সেটাই আসল প্রশ্ন।’’