স্কুইড কোলিওয়াডা

উপকরণ: স্কুইড ৫০০ গ্রাম, কর্নফ্লাওয়ার ৫০ গ্রাম, জোয়ান ১ টেব্‌ল চামচ, আমচুর পাউডার ১ চা-চামচ, কারিপাতা কুচি ১ চিমটে, আদা বাটা ১ চিমটে, নুন স্বাদমতো, সানফ্লাওয়ার বা নারকেল তেল ২৫০ মিলি।

 

প্রণালী: একটি বাটিতে স্কুইড নিয়ে, তাতে একে একে কর্নফ্লাওয়ার, জোয়ান, আমচুর পাউডার, আদা বাটা আর নুন মিশিয়ে মিনিট পনেরো রেখে দিন। খেয়াল রাখবেন, এই মিশ্রণ যেন শুকনো শুকনো হয়। কড়াইয়ে তেল গরম করুন। ম্যারিনেট করে রাখা স্কুইডের সঙ্গে কারিপাতা কুচি মিশিয়ে নিন। গরম ছাঁকা তেলে স্কুইড লালচে করে ভেজে তুলে নিন। গরম-গরম স্কুইড কোলিওয়াডা পরিবেশন করুন টম্যাটো সস অথবা নারকেলের চাটনি দিয়ে।

 

প্রন ঘি রোস্ট

উপকরণ: চিংড়ি ৪৫০ গ্রাম (প্রতিটি চিংড়ি যেন ৩৫-৪০ গ্রাম ওজনের হয়), দেশি ঘি ৫০ গ্রাম, পেঁয়াজ ২টি (বড়), আদা বাটা ১ টেব্‌ল চামচ, টম্যাটো পিউরি ১ টেব্‌ল চামচ, জয়িত্রী বাটা ১ চিমটে, জল ঝরানো টক দই ১ টেব্‌ল চামচ, নুন স্বাদমতো।

 

প্রণালী: প্রথমে চিংড়ির খোসা ছাড়িয়ে, সুতো বের করে, ভাল করে ধুয়ে নিন। এ বার পুরো ঘি-টা সমান দুটি ভাগে ভাগ করে রাখুন। কড়াইয়ে অর্ধেক অর্থাৎ ২৫ গ্রাম ঘি গরম করুন। তাতে পেঁয়াজ বাটা ও আদা বাটা দিয়ে নাড়তে থাকুন। পেঁয়াজের গায়ে লালচে রং ধরলে টম্যাটো পিউরি, জয়িত্রী বাটা, জল ঝরানো টক দই আর নুন দিয়ে কষতে থাকুন। মশলা থেকে ঘি ছাড়তে শুরু করলে, কাঁচা চিংড়ি (সেদ্ধ, ভাপা অথবা হালকা ভাজাও নয়) দিন। অল্প নেড়ে ঢাকা দিয়ে কিছুক্ষণ সেদ্ধ হতে দিন। চিংড়ি আধসেদ্ধ হয়ে এলে নামিয়ে নিন। এ বার একটা বেকিং-প্রুফ ডিশ নিয়ে তাতে বাকি ২৫ গ্রাম ঘি ভাল করে মাখিয়ে নিন। ডিশের উপরে চিংড়ি রাখুন। ১৮০ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় প্রি-হিট করে রাখা আভেনে ওই চিংড়ির প্রিপারেশনটি মিনিট পাঁচেক বেক করে নামিয়ে নিন। গরম গরম পরিবেশন করুন চিংড়ির ঘি রোস্ট।

 

অক্টোপাস বাটার চিলি ফ্রাই

উপকরণ: বেবি অক্টোপাস ৩০০ গ্রাম, মাখন ১০০ গ্রাম, কাঁচা লঙ্কা ৫০ গ্রাম (বীজ ছাড়ানো), পেঁয়াজ ২টি (বড়), আদা বাটা ১ টেব্‌ল চামচ, রসুন বাটা ১ টেব্‌ল চামচ, কালো সরষে ২ চিমটে, কারিপাতা ১ টেব্‌ল চামচ, নুন স্বাদমতো, নারকেল গুঁড়ো ১ চিমটে।

প্রণালী: প্রথমে অক্টোপাস কেটে ভিতরের কালো থলি ও নোংরা বের করে ভাল করে পরিষ্কার করে নিন। কড়াইয়ে মাখন গরম করে, সরষে আর কারিপাতা ফোড়ন দিন। তাতে আদা বাটা, রসুন বাটা আর পেঁয়াজ বাটা দিয়ে নাড়তে থাকুন। বাটা মশলায় লালচে রং ধরতে শুরু করলে, কাঁচা লঙ্কা, নুন আর অক্টোপাস দিয়ে সতে করুন। অক্টোপাস ভাজা ভাজা হয়ে এলে, উপর থেকে নারকেলের গুঁড়ো ছড়িয়ে নামিয়ে নিন। গরম গরম পরিবেশন করুন অক্টোপাস বাটার চিলি ফ্রাই। বন্ধুদের সঙ্গে জমাটি আড্ডার সময় পরিবেশন করুন অক্টোপাস বাটার চিলি ফ্রাই।

 

পমফ্রেট তাওয়া ফ্রাই

উপকরণ: পমফ্রেট ৩টি (১৫০ গ্রাম ওজনের), আদা বাটা ১ টেব্‌ল চামচ জোয়ান গুঁড়ো ২ চিমটে, ধনেপাতা বাটা ১ টেব্‌ল চামচ, জিরে বাটা ১ চিমটে, আমচুর পাউডার ১ টেব্‌ল চামচ, চালের গুঁড়ো ১ চিমটে, নুন স্বাদমতো, নারকেল তেল ১ টেব্‌ল চামচ।

প্রণালী: পমফ্রেট ভাল করে পরিষ্কার করে নিয়ে, মাছের গা চিরে দিন (তিনটি চেরা দাগ থাকবে)। একটি বাটিতে আদা বাটা, জোয়ান গুঁড়ো, ধনেপাতা বাটা, জিরে বাটা, আমচুর পাউডার আর নুন একসঙ্গে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে নিন। এ বার মাছের গায়ে ওই পেস্ট ভাল করে মাখিয়ে অন্তত ঘণ্টাখানেক ম্যারিনেট করে রাখুন। পরিবেশন করার আগে মাছের গায়ে চালের গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। ননস্টিক তাওয়ায় সামান্য তেল দিয়ে ম্যারিনেট করে রাখা মাছ কম আঁচে ভাজতে থাকুন। মাছের গায়ে সোনালি রং ধরলে, আর মাছ নরম হয়ে এলে নামিয়ে নিন।

 

ছবি: শুভেন্দু চাকী

 

আপনি কি নিজের অভিনব রান্নার রেসিপি পত্রিকায় প্রকাশ করতে চান? তবে সেই রান্নার ছবি তুলে নাম, ঠিকানা ও ফোন নাম্বার-সহ মেল করুন এই মেল আইডিতে patrika.ranna@gmail.com