Advertisement
২৭ নভেম্বর ২০২২

টানা বারো বছর ধরে পেশায় ভুয়ো চিকিৎসক

বারো বছর ধরে চিকিৎসা চালাচ্ছিলেন ভুয়ো ডিগ্রিধারী চিকিৎসক।

ধৃত চিকিৎসক

ধৃত চিকিৎসক

নিজস্ব সংবাদদাতা
গোপালনগর  শেষ আপডেট: ২৫ জুলাই ২০১৮ ০২:১৫
Share: Save:

বারো বছর ধরে চিকিৎসা চালাচ্ছিলেন ভুয়ো ডিগ্রিধারী চিকিৎসক।

Advertisement

সোমবার গোপালনগরের কদমতলা এলাকা থেকে ধরা পড়েন মোবারক মণ্ডল নামে ওই ভুয়ো চিকিৎসক ও তাঁর সহযোগী ফারুক আহমেদ। মঙ্গলবার বনগাঁ মহকুমা আদালতে হাজির করানো হয় দু’জনকে। বিচারক ৫ দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রাথমিক তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে পেরেছে, সরকার স্বীকৃত কোনও প্রতিষ্ঠান থেকে ডাক্তারি ডিগ্রি নেই মোবারকের। নিজেকে এমবিবিএস ডাক্তার বলে দাবি করে চিকিৎসা শিবির চালালেও তেমন কোনও নথিপত্র নেই তাঁর। এমনকী, রেজিস্ট্রেশন নম্বরও ভুয়ো।

পুলিশকে বছর ছত্রিশের ওই ব্যক্তি জানিয়েছেন, বিকম পাস করে বারাসতের একটডি ইনস্টিটিউট থেকে ডাক্তারি ডিগ্রি পেয়েছিলেন তিনি। যদিও সেই ইনস্টিটিউট আর কোনও অস্তিত্ব নেই বলে জানতে পেরেছে পুলিশ। মোবারক চিকিৎসক হিসাবে কোনও নথিপত্রই দেখাতে পারেননি বলে পুলিশের দাবি। জেরায় বছর মোবারক জানিয়েছেন, বারো বছর ধরে গ্রামীণ চিকিৎসক হিসাবে কর্মরত তিনি। আমডাঙার বাসিন্দা ওই যুবক চেম্বার চালাতেন হাড়োয়া, খিদিরপুর, নিউটাউন, মাধবপুরে।

Advertisement

নিজেকে এমবিবিএস চিকিৎসক হিসাবে পরিচয় দিয়ে মোবারক সোমবার কদমতলায় একটি স্বাস্থ্য শিবিরের আয়োজন করেছিলেন। সেখানেই লোকজনের সন্দেহ হওয়ায় শেষমেশ ধরা পড়ে যান।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.