Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

শারদোৎসবের মধ্যে শুরু হুদুড় দুর্গার খোঁজ, মহিষাসুরের সন্ধানে আদিবাসীদের দাঁশাই নাচ

নিজস্ব সংবাদদাতা
বর্ধমান ১১ অক্টোবর ২০২১ ১৬:৩২
বর্ধমান টাউন হলে দাঁশাই নাচের দল।

বর্ধমান টাউন হলে দাঁশাই নাচের দল।
—নিজস্ব চিত্র।

শারদোৎসবের সঙ্গেই সমান্তরাল ভাবে শুরু হল আদিবাসীদের হুদুড় দুর্গা খোঁজার প্রথা ‘দাঁশাই নাচ’। গোটা রাজ্য যখন উৎসবে মাতোয়ারা তখন আদিবাসীরা এই সময় গ্রাম থেকে গ্রামান্তরে খুঁজে বেড়ান তাঁদের প্রিয় হুদুড় দুর্গাকে। সেই প্রথাকেই বলা হয় দাঁশাই নাচ। ইতিমধ্যেই বর্ধমান টাউন হলে সূচনা হয়েছে সেই নাচের।

অসুরদলনীর বন্দনায় রাজ্য তো বটেই মুখর গোটা দেশ। এমনকি বিদেশও। একই সময়ে আদিবাসী সমাজে শুরু হয় অসুর পুজো। রবিবার বর্ধমান টাউন হলে শুরু হল দাঁশাই নাচের। সোমবার থেকে ওই দলটি জেলার বিভিন্ন আদিবাসী গ্রামে শুরু করেছে দাঁশাই নাচের অনুষ্ঠান। রবিবার ওই অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন তৃণমূলের আদিবাসী শাখার সভাপতি তথা পূর্ব বর্ধমান জেলা পরিষদের সহ-সভাধিপতি দেবু টুডু। তিনি বলেন, ‘‘ক্রমশই হারিয়ে যাচ্ছে আদিবাসী সমাজের নিজস্ব কৃষ্টি এবং সংস্কৃতি। অনাদিকাল ধরে চলে আসা এই সংস্কৃতিকে বাঁচিয়ে রাখতেই সূচনা হল দাঁশাই নাচের।’’

Advertisement

আদিবাসী খেড়ওয়ালদের কাছে এই হুদুড় দুর্গা আসলে মহিষাসুর। লোককথা অনুসারে, মহিষাসুরকে অন্যায় ভাবে হত্যা করে আর্যরা। কথিত আছে, প্রথা অনুযায়ী, মহিষাসুর কখনই নারী বা শিশুর বিরুদ্ধে অস্ত্র ধরতেন না। সেই সুযোগ নিয়ে নারীকে সামনে রেখেই মহিষাসুরের বিরুদ্ধে জয় পায় আর্যরা। তার পর থেকেই দাঁশাই নাচের মাধ্যমে হুদুড় দুর্গার খোঁজ করার প্রথা চলে আসছে আদিবাসীদের মধ্যে। বর্ধমানের জাহের থানের মোড়ল লসো হেমব্রম বলছেন, ‘‘আদিবাসীরা কেউই দুর্গাপুজো করেন না। তাঁরা মহিষাসুরকেই তাঁদের দেবতা হিসাবে দেখেন।’’

আরও পড়ুন

Advertisement