Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

তাপপ্রবাহের জের, স্কুলে ফের ১১ দিনের ছুটি ঘোষণা

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৮ জুন ২০১৮ ২২:০৩
পার্থ চট্টোপাধ্যায়। —ফাইল চিত্র

পার্থ চট্টোপাধ্যায়। —ফাইল চিত্র

প্রচণ্ড দাবদাহের জন্য ফের ১১ দিনের জন্য স্কুল ছুটির সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার। বেসরকারি স্কুলগুলিকেও এই সময় স্কুল বন্ধ রাখার আর্জি জানানো হবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। ফলে বেসরকারি স্কুলগুলিও সরকারের আর্জি মেনে ছুটির ঘোষণা করতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

সোমবার সাংবাদিক বৈঠকে শিক্ষামন্ত্রী জানান, রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্তের অভিভাবক, তৃণমূল শিক্ষক সংগঠনের সদস্য, সাংবাদিক-সহ নানা মহল থেকে এ দিন দফতরে যোগাযোগ করা হয়। রাজ্য জুড়ে যে তীব্র গরম ও তাপপ্রবাহ চলছে তাতে যে কোনও সময় ছাত্রছাত্রীরা অসুস্থ হয়ে পড়তে পারে। এই বিষয়টি উল্লেখ করে গরমের ছুটি বাড়ানোর জন্য আর্জি জানান অনেকেই। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দিল্লি থেকে ফেরার পরই বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়। তিনি সবুজ সঙ্কেত দেওয়ার পরই স্কুল শিক্ষা দফতরের পক্ষ থেকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়, ২০ থেকে ৩০ জুন রাজ্যের সমস্ত সরকারি স্কুল ছুটি থাকবে।

তবে এই সময় পড়াশোনার যে ঘাটতি হবে, স্কুল খুললে তা পুষিয়ে দেওয়ার জন্য শিক্ষকদের নির্দেশও দেন শিক্ষামন্ত্রী। একইসঙ্গে তিনি বলেন, “বেসরকারি স্কুলগুলিতেও ছুটি দেওয়ার জন্য আর্জি জানানো হবে।”

Advertisement

আরও পড়ুন: বদলা নয়, বাদল চায় বাংলা, কিন্তু...

আরও পড়ুন: তাপপ্রবাহে অসুস্থ হনুমান, উদ্ধার করল বন দফতর

শিক্ষামন্ত্রীর এই বক্তব্যের পরই মনে করা হচ্ছে, বেসরকারি স্কুলগুলিও গরমের জন্য ছুটি ঘোষণা করতে পারে। গত বছরও গরমের ছুটি বাড়ার পর রাজ্য সরকারের আর্জিতে সাড়া দিয়ে ছুটি বাড়িয়ে দিয়েছিল বেসরকারি স্কুলগুলি। দক্ষিণ কলকাতার একটি বেসরকারি স্কুল কর্তৃপক্ষ সূত্রে জানা গিয়েছে, মঙ্গলবার আলোচনা করে এ বিষয়ে তাঁরা চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন।

রাজ্যে সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুলগুলিতে গরমের ছুটি শেষ হয়েছে ১০ জুন। ১১ জুন থেকে খুলেও গিয়েছে স্কুল। কিন্তু বর্ষার মরশুমেও রাজ্যজুড়ে তাপপ্রবাহ চলছে। আরও অন্তত দু’দিন এই পরিস্থিতি চলবে বলে সোমবারই জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। এই পরিস্থিতিতে স্কুল যাওয়া-আসার পথে চরম সমস্যায় পড়ছে পড়ুয়ারা। বিশেষ করে নিচু ক্লাসের পড়ুয়াদের গরমে নাভিশ্বাস উঠছে। অসুস্থ হয়ে পড়ছে অনেকেই। এই পরিস্থিতিতে সরকারের সিদ্ধান্তে স্বস্তির নিশ্বাস ফেলেছেন অভিভাবক ও পড়ুয়ারা।

আরও পড়ুন

Advertisement