Advertisement
১৪ জুলাই ২০২৪
Bhabanipur Bypoll

Bhabanipur Bypoll: ভবানীপুরে মমতার সমর্থনে হোর্ডিং দিলেন কংগ্রেস নেতা, পুলিশে অভিযোগ জানাল দল

মুখ্যমন্ত্রীর সমর্থনে এক হোডিং লাগিয়ে দলের রোষানলে পড়লেন এক কংগ্রেস নেতা।

ভবানীপুরে প্রার্থী না দিয়েও বিতর্কে কংগ্রেস

ভবানীপুরে প্রার্থী না দিয়েও বিতর্কে কংগ্রেস নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৫:০০
Share: Save:

ভবানীপুরের উপনির্বাচনে মমতার বিরুদ্ধে প্রার্থী না দিয়ে সমর্থন জানিয়েছে কংগ্রেস। কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী সমর্থনে এক হোর্ডিং লাগিয়ে দলের রোষানলে পড়লেন এক কংগ্রেস নেতা। তাঁর বিরুদ্ধে কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠনের পক্ষ থেকে অভিযোগও জানানো হল কলকাতা পুলিশের কাছে। শনিবার থেকে ভবানীপুর এলাকায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমর্থনে বেশকিছু হোর্ডিং লাগানো হয়। প্রচারে নাম ব্যবহার করা হয় কংগ্রেস নেতা দেবাশিস দত্তর। সঙ্গে আরও ১০ জনের নাম দেওয়া হয় ওই হোর্ডিংয়ে। এরপরেই শুরু হয় বিতর্ক।
ওই নেতা হোর্ডিংয়ে নিজেকে কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠনের শীর্ষ নেতা বলে দাবি করেন। হোর্ডিংয়ের কথা প্রকাশ্যে আসতেই কংগ্রেস কর্মীরা বিষয়টি জানান শ্রমিক সংগঠন আইএনটিইউসি-র রাজ্য সভাপতি কামরুজ্জমান কামারকে। তারপরেই প্রতিবাদ জানিয়ে কলকাতা পুলিশের যুগ্ম কমিশনারকে চিঠি দিয়ে প্রতিবাদ করেন আইএনটিইউসি-র রাজ্য সভাপতি ও দক্ষিণ কলকাতা কংগ্রেসের সভাপতি প্রদীপ প্রসাদ।

দু’টি চিঠিতেই প্রতিবাদস্বরূপ লেখা হয়েছে, ‘ভবানীপুর বিধানসভা উপনির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থীর সমর্থনে কংগ্রেস প্রার্থী দেয়নি। কংগ্রেস সমর্থকদের নির্দেশ দিয়েছে দল ভোটের দিন তৃণমূল কে ভোট দিতে।’ চিঠিতে আরও লেখা হয়েছে, ‘এই সুযোগে জনৈক দেবাশিস দত্ত নিজেকে কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠন আইএনটিইউসি-র সভাপতি হিসেবে ভবানীপুর জুড়ে তৃণমূল প্রার্থী মমতা ব্যানার্জির সমর্থনে হোর্ডিং লাগিয়েছে। বিরোধী বিজেপি এই বিষয়টা ইস্যু করতে পারে। আপনার নিকট আবেদন রাখলাম বিষয়টা ভেবে দেখার।’

দক্ষিণ কলকাতা জেলা কংগ্রেসের সভাপতি প্রদীপ বলেন, ‘‘দেবাশিস ১০ বছর আগে কংগ্রেসের কৃষক সংগঠনের দায়িত্বে ছিলেন। এখন আর কোনও দায়িত্বে নেই। দলের সঙ্গে ওঁর যোগ নেই বললেই চলে। এমতাবস্থায় ভুল তথ্য দিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সমর্থনে পোস্টার দিয়ে তিনি অন্যায় করেছেন। তাই আমরা পুলিশে অভিযোগ জানিয়েছি।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE