Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৭ নভেম্বর ২০২১ ই-পেপার

Bengal Flood: রাজ্যের বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে পিএমও-র টুইটে মমতার অভিযোগেই সিলমোহর! মনে করছে তৃণমূল

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৫ অগস্ট ২০২১ ০০:৩১
নরেন্দ্র মোদী এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।

নরেন্দ্র মোদী এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ।
ফাইল চিত্র।

রাজ্যের একাংশে বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফোনালাপের পরেই টুইট করেছিল প্রধানমন্ত্রীর দফতর (পিএমও)। তাতে রাজ্যের একাংশে বন্যা পরিস্থিতির জন্য বাঁধ থেকে জল ছাড়াকেই কারণ হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে। বুধবারের ওই টুইটে বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে মমতার অভিযোগেই সিলমোহর পড়েছে বলে মনে করছে তৃণমূলের একাংশ।

রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে মোদী সরকারকেই কাঠগড়ায় তুলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। বুধবার মোদীর সঙ্গে ফোনালাপেও তাঁকে সরাসরি সে অভিযোগ করেছেন মমতা। তার সুরাহা চেয়ে চিঠিও লিখেছেন প্রধানমন্ত্রীকে। মমতার অভিযোগ, রাজ্যের সাম্প্রতিক বন্যা পরিস্থিতি ‘ম্যান মেড’। রাজ্যের অনুমতি ছাড়া মাইথন, পাঞ্চেত এবং তেনুঘাট জলাধার থেকে প্রায় দু’লাখ কিউসেক জল ছেড়েছে ডিভিসি। যার ফলেই হাওড়া, হুগলি, দুই বর্ধমান, বীরভূম এবং পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায় বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। সেই সঙ্গে রাজ্যের নদীগুলির নাব্যতা কমে যাওয়ার জন্য ডিভিসি-র রক্ষণাবেক্ষণের অভাবই দায়ী বলে মনে করেন মমতা। পাশাপাশি, গত কয়েক দিন ধরে ক্রমাগত বৃষ্টির ফলে ওই সব জেলায় বন্যা পরিস্থিতিকে তরান্বিত করেছে। সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে মমতা জানিয়েছিলেন, সে দিন পর্যন্ত বন্যার কারণে প্রাণহানি হয়েছে ১৬ জনের। পরে সেই সংখ্যা বেড়েওছে। বন্যা পরিস্থিতিতে রাজ্য জুড়ে কম পক্ষে ২০ জনের প্রাণহানি হয়েছে। একই সঙ্গে লক্ষ লক্ষ মানুষ ক্ষতিগ্রস্তও হয়েছেন।

Advertisement

বুধবার দুপুরে মোদীর দফতর (পিএমও) থেকে টুইটেও বন্যা পরিস্থিতির কারণ হিসাবে জল ছাড়ার উল্লেখ করা হয়েছে। পিএমও-র ওই টুইটে লেখা হয়েছে, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কথা বলেছেন। জলাধার থেকে জল ছাড়ার জন্য রাজ্যের বিভিন্ন অংশে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে প্রধানমন্ত্রী সব রকমের সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন। বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার মানুষদের সুরক্ষা ও কুশলের জন্য প্রধানমন্ত্রী মোদী প্রার্থনা করেছেন।’ এর পর ওই টুইটে বন্যা পরিস্থিতির কারণ হিসাবে জল ছাড়ার উল্লেখ করার অংশটিই বড় করে দেখছে তৃণমূলের একাংশ। তাদের দাবি, এতে বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে মমতার অভিযোগেই স্বীকৃতি মিলেছে। যদিও রাজ্য বিজেপি-র নেতারা আগেই দাবি করেছিলেন, বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে কেন্দ্রকে দোষারোপ করা অনুচিত।

আরও পড়ুন

Advertisement