Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

সক্রিয় পুলিশ, মল্লারপুরে মনোনয়ন জমা বিজেপির

অপূর্ব চট্টোপাধ্যায়
মল্লারপুর ০৫ এপ্রিল ২০১৮ ০০:২০
রামপুরহাটে মহকুমাশাসকের দফতরে রাজনৈতিক দলের কর্মীদের ভিড়।

রামপুরহাটে মহকুমাশাসকের দফতরে রাজনৈতিক দলের কর্মীদের ভিড়।

আগের দিন আটকে গেলেও বুধবার পুলিশের উপস্থিতিতে মল্লারপুরে বিনা বাধায় মনোনয়ন জমা করল বিজেপি। বিজেপি নেতারা মনে করছেন, মঙ্গলবার প্রতিরোধ করাতেই ফল মিলেছে।

কলেজ নির্বাচন থেকে গোষ্ঠী সংঘর্ষের মতো সাম্প্রতিক কিছু ঘটনা রাজ্যে মল্লারপুরকে আলাদা ভাবে চিহ্নিত করেছে। সেই মল্লারপুরে অবস্থিত ময়ূরেশ্বর ১ পঞ্চায়েত সমিতির কার্যালয়ে পঞ্চায়েতের মনোনয়নে মঙ্গলবার দলীয় প্রার্থীদের মনোনয়ন জমা দিতে বাধা দেওয়া হয় বলে বিজেপির অভিযোগ। এর পরেই বিজেপি কর্মীরা মনোনয়ন জমা নিশ্চিত করতে ৪৫ মিনিট জাতীয় সড়ক অবরোধ করে। পুলিশের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেয় বিজেপি কর্মীরা। এর পরেই মল্লারপুর বাহিনা মোড়ে মনোনয়ন জমা দিয়ে বিডিও অফিস থেকে বাড়ি ফেরার পথে তৃণমূল কর্মীদের উপরে চড়াও হয় বিজেপি কর্মীরা। পরে পুলিশ এলাকা দখল করে নিলে বিজেপি কর্মীরা এলাকা থেকে চলে যায়। বুধবার সকালে যতোই বাধা আসুক, মনোনয়ন জমা দেবেনই এই মনোভাব থেকেই মনোনয়ন জমা করেন ওই নেতাকর্মীরা।

বুধবার সকালে এলাকায় গিয়ে দেখা গেল, বিজেপি কর্মীরা বাহিনা মোড়ে দলবদ্ধ ভাবে মিলিত হয়েছেন। সেখান থেকে বিডিও অফিস প্রার্থীদের নিয়ে যাওয়ার পরে কর্মীরা বিডিও অফিস লাগোয়া বিভিন্ন জায়গায় ছড়িয়ে ছিটিয়ে গেলেন। বিডিও অফিসের সামনে গিয়ে দেখা গেল, পুলিশের ঘেরাটোপে রয়েছে এলাকা। ঢোকার আগে দু’প্রস্থ চেকিং। মোটরবাইক আরোহীদের প্রবেশ করার ক্ষেত্রেও চেকিং করে ঢোকানো হচ্ছে। মূল প্রবেশদ্বারের সামনে বাঁশের ব্যারিকেড। সেখানেও প্রার্থীদের সঙ্গে প্রস্তাবক ছাড়া কাউকে কাগজ পরীক্ষা করে ঢুকতে দিচ্ছে না পুলিশ। যথেষ্ট পুলিশি পাহারা আছে দেখে বিজেপি কর্মীরা দুপুর বারোটা নাগাদ বিডিও অফিস চত্বরে প্রার্থীদের নিয়ে যেতে সাহস পায়। দিনের শেষে এক দিনেই বিজেপি পঞ্চায়েত সমিতির ২৭টি আসনের মধ্যে ১১টি আসনে এবং গ্রাম পঞ্চায়েতের ১০৭টি আসনের মধ্যে ৪৪ জন প্রার্থীর মনোনয়ন জমা দিতে পেরেছে। দলের জেলা সম্পাদক অতনু চট্টোপাধ্যায়ের অভিযোগ, ‘‘মঙ্গলবার বিডিও অফিসের ভিতরে দলীয় প্রার্থীদের মনোয়ন জমা দিতে বাধা দেয় শাসকদলের কর্মীরা। এর পরই শাসকদলের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার সঙ্কল্প নেন কর্মীরা। তাতেই ফল মিলেছে।’’ তবে পুলিশের সাহায্যের কথাও মেনে নিয়েছেন বিজেপি নেতারা।

Advertisement



সিউড়ি ১ ব্লকে মনোনয়ন কেন্দ্রের বাইরে আকাশমুখী সিসিক্যামেরা।

ছবি: সব্যসাচী ইসলাম ও তাপস বন্দ্যোপাধ্যায়



Tags:
Panchayet Election TMC BJPতৃণমূলবিজেপি

আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement