Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

দলে কমিটি তৈরির দাবি পুরুলিয়ায়

ব্লক কমিটি তৈরি হয়নি বলে দলনেত্রীর রোষে পড়েছেন দলের বাঁকুড়া জেলা সভাপতি। পাশের জেলা পুরুলিয়াতেও একই অবস্থা চলছে। জেলা কমিটি থেকে শুরু পুরো

নিজস্ব সংবাদদাতা
আদ্রা ০৩ মার্চ ২০১৭ ০১:৩৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

ব্লক কমিটি তৈরি হয়নি বলে দলনেত্রীর রোষে পড়েছেন দলের বাঁকুড়া জেলা সভাপতি। পাশের জেলা পুরুলিয়াতেও একই অবস্থা চলছে। জেলা কমিটি থেকে শুরু পুরোদস্তুর ব্লক কমিটি কিছুই তৈরি হয়নি। তাই বাঁকুড়ার ঘটনা সামনে আসায় এ বার পুরুলিয়ায় দলের অন্দরে দাবি উঠেছে, ওই সব কমিটি এ বার গড়া হোক।

গত নভেম্বরের শেষদিকে পুরুলিয়ায় দলের কর্মশালায় যোগ দিতে এসে জেলা সভাপতি শান্তিরাম মাহাতোকে সাতদিনের মধ্যে জেলা কমিটি তৈরির নির্দেশ দিয়েছিলেন তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু তিন মাস পার হয়ে গেলেও জেলা কমিটি তৈরি হয়নি। এক বছরের মাথায় পঞ্চায়েত নির্বাচনের সম্ভাবনা আছে। ফলে দলের জনপ্রতিনিধি ও দলের নেতাদের মধ্যে সমন্বয় সাধনের জন্য কমিটি তৈরি করা আশু প্রয়োজন বলে জানাচ্ছে দলেরই নেতাদের একাংশ।

বস্তুত পুরুলিয়ায় জেলা কমিটি তৈরি করা নিয়ে দীর্ঘসময় ধরেই টালবাহানা চলেছে দলের অন্দরে। তৃণমূল সূত্রের খবর, দলের বিভিন্ন গোষ্ঠীর নানা সমীকরণ সামলে কী ভাবে সর্বসম্মত ভাবে জেলা কমিটি তৈরি করা সম্ভব, সেটাই জেলার শীর্ষ নেতৃত্ব বুঝতে পারছেন না। আপাতত বিধায়ক, সাংসদ ও দলের গুরুত্বপূর্ণ নেতাদের নিয়ে ২৫ জনের একটা কোর কমিটি তৈরি করে পুরুলিয়ায় দলীয় সংগঠনের কাজ হচ্ছে। কিন্তু কোর কমিটির বৈঠকও নিয়মিত হয় না বলে ক্ষোভ রয়েছে দলের অন্দরে। এখনও পর্যন্ত একটি মাত্র সভা হয়েছে কোর কমিটিতে।

Advertisement

একই অবস্থা জেলার ২০টি ব্লক কমিটিতেও। দল সূত্রের খবর, কোনও ব্লকেই পুরোদস্তুর কমিটি তৈরি হয়নি। দলেরই এক গুরুত্বপূর্ণ নেতার অভিযোগ, ‘‘যে ভাবে জেলায় একাই দল চালাচ্ছেন সভাপতি, তেমনই ব্লকগুলিও চালাচ্ছেন সভাপতিরা।’’ তৃণমূলের জেলা নেতা সুজয় বন্দ্যোপাধ্যায়ও বলেন, ‘‘জেলা কমিটি আছে বলে জানা নেই। মাঝে মধ্যে জেলা সভাপতি মুখ্যমন্ত্রীর সভা বা দলের পর্যবেক্ষক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সভার আগে অথবা ২১ জুলাই এর মতো বড় কোনও সভার আগে সে সংক্রান্ত মিটিং ডাকেন। এর বেশি কিছু হয় না।”

তবে ঘটনা হল বিভিন্ন বিষয় নিয়ে ক্রমশই সংঘাতের পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে। আগামী বছরের মার্চের পরেই পঞ্চায়েত নির্বাচন হওয়ার কথা। এই অবস্থায় পুরোদস্তুর জেলা বা ব্লক কমিটি তৈরি না হলে নির্বাচনে এই সংঘাতের একটা বড় প্রভাব পড়বে বলে আশঙ্কা। দলের এক নেতার কথায়, ‘‘পঞ্চায়েত নির্বাচনে জয় পরাজয় নির্ধারিত হয় কয়েকটি ভোটের ব্যবধানে। যে ভাবে দলের মধ্যে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্ব তৈরি হচ্ছে, তা কাটিয়ে উঠে সবাই মিলে কাজ করার জন্য জেলা ও ব্লক কমিটি দ্রুত তৈরি করা প্রয়োজন।’’ যদিও জেলা সভাপতি শান্তিরাম মাহাতোর দাবি, ‘‘দলের মধ্যে কোনও সমস্যা নেই। জেলা কমিটির তালিকা তৈরি করে রাজ্য নেতৃত্বর কাছে জমা দেওয়া হয়েছে। অনুমোদন পেলেই দ্রুত কমিটি তৈরি করা হবে।”



Something isn't right! Please refresh.

Advertisement