Advertisement
১৩ জুলাই ২০২৪

জমি-জটে থমকে রাস্তা তৈরির কাজ

গ্রাম থেকে বাইরে যাওয়ার জন্য মোটরবাইক চালানোর রাস্তা তো দূরের কথা, সাইকেল রাস্তাও ছিল না। বছর পাঁচেক আগে তিন, চারটে গ্রামের বাসিন্দারা মিলিত হয়ে গ্রামের রাস্তা সংস্কারের জন্য নিজেদের স্বার্থে চাষযোগ্য জমির তিন ফুট করে অংশ ছেড়ে দেওয়ায় গ্রাম থেকে বাইরে যাওয়ার সেই রাস্তা তৈরি হয়।

জট: মুরারইয়ের এই রাস্তা নিয়েই দ্বন্দ্ব। নিজস্ব চিত্র

জট: মুরারইয়ের এই রাস্তা নিয়েই দ্বন্দ্ব। নিজস্ব চিত্র

অপূর্ব চট্টোপাধ্যায়
মুরারই শেষ আপডেট: ১৭ এপ্রিল ২০১৭ ০১:১৩
Share: Save:

গ্রাম থেকে বাইরে যাওয়ার জন্য মোটরবাইক চালানোর রাস্তা তো দূরের কথা, সাইকেল রাস্তাও ছিল না। বছর পাঁচেক আগে তিন, চারটে গ্রামের বাসিন্দারা মিলিত হয়ে গ্রামের রাস্তা সংস্কারের জন্য নিজেদের স্বার্থে চাষযোগ্য জমির তিন ফুট করে অংশ ছেড়ে দেওয়ায় গ্রাম থেকে বাইরে যাওয়ার সেই রাস্তা তৈরি হয়। মুরারই থানার দুলান্দি থেকে বালিয়া হয়ে কাহিনগর পর্যন্ত ৯ কিলোমিটার সেই রাস্তা বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনা প্রকল্পে পাকা সড়ক হওয়ার অনুমোদন মিলেছে।

সম্প্রসারণ ও সংস্কারের সেই কাজ শুরু হতেই আপত্তি তুলেছেন গ্রামবাসীরা। সে কথা তাঁরা জানিয়েছেন মুরারই ১ ব্লক বিডিও তপনকুমার হালদারকে। ফলে থমকে গিয়েছে রাস্তার কাজ। প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনা প্রকল্পে দায়িত্বপ্রাপ্ত সহকারি বাস্তুকার অরিজিৎ ঘোষ অবশ্য বলেন, ‘‘যদি সমস্যা থাকে এলাকাবাসীর সঙ্গে আলোচনায় বসে তা দূর করা হবে।’’

বছর পাঁচেক আগের মোড়াম রাস্তায় এত দিন চলছিল মোটরচালিত ভ্যান, ছোট গাড়ি, অ্যাম্বুল্যান্স। বর্তমান রাস্তা নির্মাণের জন্য ৪ কোটির বেশি টাকা বরাদ্দ হয়েছে। ঠিক হয়েছে, জিও-জুট প্রকল্পে চট বিছিয়ে রাস্তা তৈরি হবে। এবং রাস্তাটি যে সমস্ত গ্রামের ভিতর দিয়ে গিয়েছে, সেই অংশগুলি ঢালাই করা হবে। গ্রামের বাইরে পিচ রাস্তা করা হবে। সংস্কারের কাজের জন্য দুলান্দি গ্রামের বাইরে মাঠের দিকে মাটি ভরাটের কাজ চলছে। আর এই মাটি ভরাটের কাজ নিয়েই আপত্তি এলাকাবাসীর।

দুলান্দি গ্রামের বাসিন্দাদের একাংশ জানিয়েছেন, গ্রামের বাইরে বেরোনোর জন্য প্রথম দিকে রাস্তা ছিল না। সেই রাস্তা সংস্কারের জন্য গ্রামবাসী তাঁদের চাষযোগ্য জমির তিন ফুট অংশ করে স্বেচ্ছায় দান করেছেন। কিন্তু বর্তমানে রাস্তাটি সংস্কারের জন্য চাষিদের সঙ্গে কোনও
আলোচনা না করেই চাষযোগ্য জমিতে মাটি ভরাটের কাজ শুরু হয়েছে। দুলান্দি গ্রামের বাসিন্দা পলাশ মণ্ডল, মুক্তি ভুঁইমালি, দিনু ভুঁইমালিদের দাবি, সরকার জমি অধিগ্রহণ না করেই ব্যক্তিগত মালিকানাধী চাষযোগ্য জমিতে মাটি ভরাটের কাজ শুরু করে দিয়েছে। কোনও রকম আলোচনা ছাড়াই যন্ত্র দিয়ে জমির মাটি কেটে ফেলা হচ্ছে। সরকার জমির ক্ষতিপূরণ বাবদ টাকা না দিলে রাস্তা নির্মাণে তাঁদের আপত্তি আছে বলেও সাফ জানিয়েছেন।

সহকারি বাস্তুকার অরিজিৎবাবু বলেন, ‘‘প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনার বেশির ভাগ রাস্তা সাধারণত আমজনতার জমির উপরেই তৈরি করা হয়। মুরারইয়ের দুলান্দিতে কী হয়েছে ঠিকাদার এখনও জানাননি। ঠিক কী হয়েছে জেনে সমস্যা মেটাতে দ্রুত উদ্যোগী হব।’’ কোথায় ভুল বোঝাবুঝি হচ্ছে, তা জেনে সমস্যা মেটানোর আশ্বাস দিয়েছেন বিডিও।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Land Issue Construction Murarai
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE