• সংবাদ সংস্থা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

২০২৫-এর মধ্যে ১০ লক্ষ কর্মসংস্থানের প্রতিশ্রুতি দিলেন বেজোস

Jeff Bezos
জেফ বেজোস। —ফাইল চিত্র।

Advertisement

নয়া নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে মুখ খুলে মোদী সরকারের রোষে পড়েছেন আগেই। বাণিজ্যিক রীতি রেওয়াজ ভাঙার অভিযোগ নিয়ে তাঁর বিরুদ্ধে ক্ষোভ জমা হয়েছে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের মধ্যেও। তবে ভারতের বিশাল বাজারের কথা মাথায় রেখে একের পর এক ঘোষণা করেই চলেছেন মার্কিন ই-কমার্স সংস্থা অ্যামাজনের কর্ণধার জেফ বেজোস। এ বার পাঁচ বছরে ভারতে অতিরিক্ত ১০ লক্ষ কর্মসংস্থান তৈরির করবেন বলে প্রতিশ্রুতি দিলেন তিনি।

শুক্রবার ভারতে অ্যামাজনের ওয়েবসাইটে একটি চিঠি প্রকাশ করেন জেফ বেজোস। তাতে তিনি বলেন, ‘‘গোটা বিশ্বে ১০০০ কোটি ডলারের ভারতীয় পণ্য রপ্তানি করতে অ্যামজনের আন্তর্জাতিক নেটওয়ার্ককে ব্যবহার করব আমরা। এতে ২০২৫-এর মধ্যে ভারতে অতিরিক্ত ১০ লক্ষ কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে।’’ যত বার ভারতে আসেন, আরও বেশি করে এই দেশকে ভালবেসে ফেলেন বলেও জানান বেজোস। তিনি বলেন, ‘‘যত বার ফিরে আসি, ততই আরও বেশি করে ভারতকে ভালবেসে ফেলি আমি। ভারতীয়দের কর্মশক্তি, উদ্ভাবন শক্তি এবং মনের জোর বরাবরই উৎসাহিত করে আমায়।’’

এর আগে, বুধবারই ছোট ব্যবসায়ীদের উন্নত প্রযুক্তির সুবিধা দিতে আগামী পাঁচ বছরে ভারতে আরও ১০০ কোটি ডলার লগ্নি করার কথা ঘোষণা করেছিলেন বেজোস। জানিয়েছিলেন , দেশের বিভিন্ন শহরে ১০০টি ডিজিটাল কেন্দ্র খুলবে অ্যামাজন, যাতে ই-কমার্স দুনিয়ায় এক কোটি নতুন ব্যবসা  পা রাখতে পারে।

আরও পড়ুন: নির্ভয়া কাণ্ডে ফাঁসি ১ ফেব্রুয়ারি, নয়া মৃত্যু পরোয়ানা জারি আদালতের​

যদিও তাতেও মন গলেনি ভারত সরকারের। বরং ১০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করে তিনি যে ভারতকে কৃতার্থ করছেন না, সংবাদমাধ্যমে সে কথা স্পষ্ট জানিয়ে দেন বাণিজ্যমন্ত্রী পীযূষ গয়াল। তিনি জানান, পণ্য বিক্রির সময় দামে ছাড় দিতে গিয়ে ফি বছর যে বিপুল ক্ষতি হয়, তা পুষিয়ে দিতেই এই লগ্নির কথা ঘোষণা করেছেন বেজোস।

তবে শুধু কেন্দ্রীয় সরকারই নয়, বেজোসের উপর চটে রয়েছে এ দেশের ব্যবসায়ী মহলও। তাদের অভিযোগ, বাজার ধরতে নিয়মের তোয়াক্কা না-করে পণ্যের উপর বিপুল ছাড় দেয় অ্যামাজন এবং ফ্লিপকার্টের মতো সংস্থা। তাতে অন্যদের ব্যবসা লাটে ওঠার জোগাড় হয়েছে। এ দেশে শুধুমাত্র ইন্টারনেটের মাধ্যমে ব্যবসারই অনুমতি রয়েছে অ্যামাজনের। কিন্তু পণ্যে বিপুল ছাড় দিয়ে অ্যামাজন একচেটিয়া বাজার দখল করতে চাইছে বলেও অভিযোগ ব্যবসায়ীদের। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে বলেও ইঙ্গিত দেন গয়াল।

আরও পড়ুন: পালানোর ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই উত্তরপ্রদেশ পুলিশের জালে ‘ডক্টর বম্ব’ ​

মার্কিন সংবাদপত্র ‘দ্য ওয়াশিংট পোস্ট’-এর মালিক জেফ বেজোস। সম্প্রতি মোদী সরকারের নয়া নাগরিত্ব আইনের তীব্র সমালোচনা করে তারা। তা নিয়ে এমনিতেই বেজোসের উপর চটে রয়েছেন বিজেপি নেতৃত্ব। খোলাখুলি সে কথা স্বীকার করেছেন বিজেপির পররাষ্ট্র বিভাগের প্রধান বিজয় চৌথাইওয়ালাও। এই পরিস্থিতিতে সকলের মন রাখতেই বেজোস একের পর এক ঘোষণা করে চলেছেন বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন