×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৪ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

পাঁচ বছরে পাঁচ কোটি চাকরি, নয়া লক্ষ্য কেন্দ্রের

সংবাদ সংস্থা 
নয়াদিল্লি ২৩ অক্টোবর ২০১৯ ০৫:০৫
নিতিন গডকড়ী।—ছবি পিটিআই।

নিতিন গডকড়ী।—ছবি পিটিআই।

পাঁচ বছরে অন্তত পাঁচ কোটি চাকরি।

ক্ষুদ্র, ছোট ও মাঝারি শিল্পে এ বার কর্মসংস্থানের এমন এক লক্ষ্যমাত্রাই তৈরি করল কেন্দ্র। মঙ্গলবার যে লক্ষ্যের কথা জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী নিতিন গডকড়ী।

২০১৪ সালে প্রথম বার ক্ষমতায় আসার পরে বছরে দু’কোটি নতুন কাজ তৈরির প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল মোদী সরকার। কিন্তু তা পূরণ হয়েছে কি না, সে বিষয়ে বিতর্ক রয়েছে বিস্তর। উল্টে সরকারি পরিসংখ্যানই বলছে, ২০১৮ সালে দেশে বেকারত্বের হার পৌঁছেছে সাড়ে চার দশকের শিখরে। এই অবস্থায় কর্মসংস্থান বাড়াতে ছোট-মাঝারি শিল্প ক্ষেত্রের দিকেই জোর দিতে চায় মোদী সরকার।

Advertisement

ছোট শিল্পে বারবার গুরুত্ব েওয়ার কথা বললেও, নোটবন্দি ও তড়িঘড়ি জিএসটি চালুর ধাক্কা এই ক্ষেত্রেই লেগেছিল সবচেয়ে বেশি। চাকরি হারিয়েছিলেন অনেকে। সাম্প্রতিক কালে অর্থনীতিতে ঝিমুনির জেরে লক্ষ লক্ষ কাজ খোয়া গিয়েছে বলে যে অভিযোগ তুলছে শিল্প, তার মধ্যেও রয়েছে ছোট-মাঝারি বহু সংস্থা। অথচ ভারতের জিডিপিতে এই শিল্পের অবদান ২৯%। গডকড়ী এ দিন বলেন, ‘‘আমাদের লক্ষ্য এখানে পাঁচ বছরে পাঁচ কোটিরও বেশি চাকরির সুযোগ তৈরি করা। বিশেষত জনজাতি, গ্রামীণ ও কৃষিপ্রধান এলাকায়।’’

এ দিকে, লগ্নি, করের মতো বিষয়ে নানা সুবিধা দিতে ছোট শিল্পের সংজ্ঞা বদলের কথা ভাবছে কেন্দ্র। গডকড়ী জানান, তা শীঘ্রই হবে। সে ক্ষেত্রে কারখানায় লগ্নির অঙ্ক নয়, ব্যবসার অঙ্কের মাপকাঠিতে তৈরি হবে ছোট শিল্পের সংজ্ঞা। অর্থমন্ত্রী এ জন্য আইন সংশোধনে সায় দিয়েছেন আগেই।

Advertisement