ইউরোপ ও উত্তর আমেরিকায় কৃষিপণ্য রফতানিতে জোর দিতে গত মার্চে পরিবহণ ও বিপণন খাতে রফতানিকারীদের আর্থিক সহায়তা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিল কেন্দ্র। কিন্তু সরকারি পরিসংখ্যান জানাল, এপ্রিল থেকে জুলাইয়ের মধ্যে ভারতের প্রায় সব ধরনের কৃষিপণ্যের রফতানি ১৪.৩৯% কমেছে। ফলে রফতানির অঙ্ক নেমেছে প্রায় ৩৮,৭০০ কোটি টাকায়। এমনিতে বিদেশের বাজারে ভারতের সব চালেরই (বাসমতি ও অন্যান্য) যথেষ্ট কদর আছে। কিন্তু কেন্দ্রের কৃষি ও প্রক্রিয়াজাত খাদ্যপণ্য রফতানি উন্নয়ন পর্ষদ প্রকাশিত পরিসংখ্যান বলছে, ওই চার মাসে দু’ধরনের চালের রফতানিই কমেছে ৯.২৬%। বেশ খানিকটা মার খেয়েছে বাদাম, বিভিন্ন ধরনের মাংস, পোল্ট্রি ও দুগ্ধজাত পণ্য, প্রক্রিয়াজাত ফল, আনাজের রফতানিও।

বিশেষজ্ঞেরা জানাচ্ছেন, ভারত থেকে প্রায় ১০০টি দেশে কৃষি ও উদ্যানজাত পণ্য রফতানি হয়। এ দেশ থেকে চাল, মশলা, মাংস, মাছ ইত্যাদি যায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন, আমেরিকা  ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার বিভিন্ন দেশে। একাংশের দাবি, চিন-মার্কিন শুল্ক যুদ্ধের জেরে অর্থনীতি শ্লথ হয়েছে। চাহিদাও ধাক্কা খেয়েছে। কৃষি পণ্য রফতানি কমে যাওয়াও তারই জের হতে পারে বলে মনে করছেন তাঁরা।