ব্যাঙ্ক নয় এমন আর্থিক প্রতিষ্ঠানের মধ্যে যেগুলি ক্ষুদ্র ঋণ সংস্থা হিসেবে কাজ করে, তাদের দেওয়া ঋণে সুদ (বেস রেট) চলতি অর্থবর্ষের দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকে ৯.১৮ শতাংশে বাঁধল রিজার্ভ ব্যাঙ্ক। এর উপরে সর্বাধিক ২.৭৫ গুণ হিসেব করে মোট সুদ ঠিক করতে পারবে তারা। ফলে তা দাঁড়াচ্ছে প্রায় ২৫.২৫%। উল্লেখ্য, তহবিল সংগ্রহ এবং সংস্থা পরিচালনার খরচের সঙ্গে মুনাফা যোগ করে সুদের হার ঠিক করতে পারে ক্ষুদ্র ঋণ সংস্থাগুলি।

এক সময়ে ক্ষুদ্র ঋণ সংস্থা ও এখন বন্ধন ব্যাঙ্কের এমডি-সিইও চন্দ্রশেখর ঘোষ বলেন, সুদ নির্ধারণের ক্ষেত্রে ক্ষুদ্র ঋণ সংস্থাগুলির কাছে দু’টি বিকল্প রয়েছে। এক, রিজার্ভ ব্যাঙ্কের ধার্য করা হার। দুই, তহবিল সংগ্রহের খরচের উপরে সর্বোচ্চ ১০% যোগ করে তা ঠিক করা। এর মধ্যে যেটি কম হবে, সেটিই কার্যকর করতে হবে তাদের।

এ দিকে, ক্ষুদ্র ঋণে তহবিল সংগ্রহের খরচ কমাতে কেন্দ্রের কাছে আর্জি জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট শিল্প। ওয়েস্ট বেঙ্গল মাইক্রো ফিনান্স অ্যাসোসিয়েশনের পরিচালন পর্ষদের সদস্য কুলদীপ মাইতি বলেন, ‘‘চাই  বাজেটেই পদক্ষেপ করুক কেন্দ্র।’’ সংস্থাগুলির বক্তব্য, তাদের তহবিল সংগ্রহের খরচ পড়ে প্রায় ১৫%।