রাজ্যের সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পগুলিতে পুঁজি জোগানোর জন্য কেন্দ্রের কাছে আর্জি জানালেন বিদ্যুৎমন্ত্রী শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়। তাঁর বক্তব্য, পুরনো তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলির প্রযুক্তি ও পরিকাঠামোগত সংস্কার করা হচ্ছে। জোর দেওয়া হয়েছে সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদনের উপরেও। এই পরিস্থিতিতে নিজস্ব তহবিল থেকে রাজ্যকে অর্থ সাহায্য করা উচিত কেন্দ্রের। মন্ত্রীর বক্তব্য, কেন্দ্র তাদের ‘ক্লিন’ বা ‘গ্রিন’ এনার্জি তহবিল থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন প্রকল্পে অর্থ সাহায্য করতে পারে। তা হলে প্রকল্পের খরচও কিছুটা কমে। নিয়ন্ত্রণে রাখা যায় বিদ্যুতের দামও। 

শনিবার বণিকসভা অ্যাসোচ্যাম আয়োজিত বিদ্যুৎ-শক্তি বিষয়ক এক আলোচনাসভায় মন্ত্রী জানান, ব্যান্ডেল, কোলাঘাটের মতো পুরনো তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলির সংস্কারের কাজে হাত দেওয়া হয়েছে। উদ্দেশ্য, ৪০-৫০ বছরের পুরনো তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রগুলির দূষণ কমানো ও উৎপাদন বাড়ানো। পাশাপাশি গড়ে তোলা হচ্ছে ছোট ছোট সৌরবিদ্যুৎ উৎপাদন প্রকল্পও। দূষণহীন শক্তি উৎপাদনের ক্ষেত্রে রাজ্য যখন আর্থিক দায় নিচ্ছে, তখন কেন্দ্রও তার দায়িত্ব এড়িয়ে যেতে পারে না বলেই তাঁর দাবি। পাশাপাশি তাঁর বক্তব্য, ২০২২ সালের মধ্যে রাজ্যে কমপক্ষে ৩০০ মেগাওয়াট সৌর বিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা স্থির করা হয়েছে। রাজ্যের গ্রিডে তাপবিদ্যুতের পাশাপাশি ধাপে ধাপে বিকল্প শক্তির সরবরাহও বাড়াতে চাইছেন তাঁরা। সেই কাজেই কেন্দ্রের তহবিলের অর্থ প্রয়োজন।