Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২১ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

সহযোগী ব্যাঙ্কে স্বেচ্ছাবসর এসবিআইয়ের

মিশিয়ে নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সহযোগী ব্যাঙ্কগুলিতে কর্মী কমাতে উদ্যোগী স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া।এই লক্ষ্যেই পাঁচটি সহযোগী ব্যাঙ্কে স্বেচ্ছাবসর

প্রজ্ঞানন্দ চৌধুরী
২২ মার্চ ২০১৭ ০২:৫০
Save
Something isn't right! Please refresh.
Popup Close

মিশিয়ে নেওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই সহযোগী ব্যাঙ্কগুলিতে কর্মী কমাতে উদ্যোগী স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া।

এই লক্ষ্যেই পাঁচটি সহযোগী ব্যাঙ্কে স্বেচ্ছাবসর প্রকল্প চালু করলেন এসবিআই কর্তৃপক্ষ। আজ বুধবার থেকেই স্বেচ্ছাবসরের জন্য আবেদনপত্র গ্রহণ শুরু করা হবে। আগামী ১ এপ্রিল স্টেট ব্যাঙ্কের পাঁচটি সহযোগী ব্যাঙ্ক মিশে যাচ্ছে মূল স্টেট ব্যাঙ্কের সঙ্গে। ওই পাঁচটি ব্যাঙ্কে মোট কর্মী সংখ্যা ৬৭ হাজার ৬৬০।
ফলে সংযুক্তির পরে স্টেট ব্যাঙ্কের মোট কর্মী সংখ্যা দাঁড়াবে ২ লক্ষ ৭৫ হাজার ৩৯৯।

স্বেচ্ছাবসর প্রকল্প নিয়ে স্টেট ব্যাঙ্কের চেয়ারপার্সন অরুন্ধতী ভট্টাচার্য এ দিন বলেন, ‘‘সহযোগী ব্যাঙ্কগুলির যে-সব কর্মী বা অফিসার আমাদের ব্যাঙ্কে যোগ দিতে ইচ্ছুক নন, তাঁদের স্বেচ্ছাবসর নেওয়ার সুযোগ করে দিতেই প্রকল্পটি আমরা চালু করেছি। কেউ প্রকল্পে সামিল হবেন কি না, সেটি তাঁর নিজস্ব সিদ্ধান্ত। তাই লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করারও প্রশ্ন নেই।’’

Advertisement

যে-স্বেচ্ছাবসর প্রকল্পটি চালু করা হয়েছে তাতে ৫ এপ্রিল পর্যন্ত আবেদনপত্র গ্রহণ করা হবে। প্রকল্পের শর্তগুলি এই রকম:

(১) কোনও কর্মী বা অফিসার কমপক্ষে ২০ বছর চাকরি করে থাকলে অথবা ২০১৭ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি তাঁর বয়স ৫৫ বছর হলে তবেই তিনি স্বেচ্ছাবসরের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

(২) চাকরির মেয়াদ যতদিন বাকি আছে তত দিনের ৫০ শতাংশ বেতন অথবা ৩০ মাসের বেতন, যেটা কম হবে সেই টাকা তিনি পাবেন স্বেচ্ছাবসরের ক্ষতিপূরণ হিসাবে।

মিশে যাওয়ার পরে সহযোগী ব্যাঙ্কের সমস্ত কর্মীই স্টেট ব্যাঙ্কের কর্মী হিসেবে পরিগণিত হবেন। স্টেট ব্যাঙ্ক ও সহযোগী ব্যাঙ্কের কর্মী এবং অফিসারদের মধ্যে মূল বেতন, মহার্ঘ ভাতা, বাড়ি ভাড়া ইত্যাদি এক হলেও অতিরিক্ত কিছু আর্থিক সুবিধা রয়েছে, যেগুলি স্টেট ব্যঙ্কের কর্মীরা পেলেও সহযোগী ব্যাঙ্কের কর্মীরা পান না।



যে-পাঁচটি সহযোগী ব্যাঙ্ক এসবিআইয়ের সঙ্গে মিশে যাচ্ছে সেগুলি হল: স্টেট ব্যাঙ্ক অব হায়দরাবাদ, স্টেট ব্যাঙ্ক অব ত্রিবাঙ্কুর, স্টেট ব্যাঙ্ক অব বিকানের অ্যান্ড জয়পুর, স্টেট ব্যাঙ্ক অব পাতিয়ালা এবং স্টেট ব্যাঙ্ক অব মহীশূর। এর আগে স্টেট ব্যাঙ্ক অব সৌরাষ্ট্র এবং স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইনদওরকে মিশিয়ে দেওয়া হয়েছিল মূল ব্যাঙ্কের সঙ্গে।

হালে মিশে যাওয়া সহযোগী ব্যাঙ্কগুলির মধ্যে স্টেট ব্যঙ্ক অব হায়দরাবাদের কর্মী সংখ্যা সব থেকে বেশি। সব থেকে কম স্টেট ব্যাঙ্ক অফ মহীশূরে। স্টেট ব্যাঙ্ক অফ হায়দরাবাদে কাজ করেন ১৭৪১৪ জম কর্মী। স্টেট ব্যঙ্ক অফ মহীশূরে ১০৬৫০ জন।

সহযোগীদের মিশিয়ে দেওয়ার পরে ভারতীয় ব্যাঙ্কগুলির মধ্যে একমাত্র স্টেট ব্যাঙ্কই আন্তর্জাতিক মানের ব্যাঙ্কের আকার পাবে বলে ধারণা শিল্পমহলের। বর্তমানে সহযোগী ব্যাঙ্কগুলিতে মোট ৫ হাজার শাখা রয়েছে। এগুলি মিশে যাওয়ার পরে স্টেট ব্যাঙ্কের মোট শাখার সংখ্যা দাঁড়াবে ২৩ হাজারের মতো। এ ছাড়া সহযোগী ব্যাঙ্কগুলিতে এটিএম রয়েছে ১৫ হাজার। সংযুক্তির পরে সারা দেশে স্টেট ব্যাঙ্কের মোট এটিএমের সংখ্যা দাঁড়াবে প্রায় ৬৪ হাজার।

তবে এর পরে সহযোগী ব্যাঙ্কের বেশ কিছু শাখা বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন ব্যাঙ্কিং শিল্পের ট্রেড ইউনিয়ন নেতাদের অনেকেই। এআইবিইএ সভাপতি রাজেন নাগর বলেন, ‘‘আগের বার দুটি সহযোগী ব্যাঙ্ককে মিশিয়ে নেওয়ার পরে তাদের বেশ কিছু শাখা বন্ধ করে দিয়েছিলেন স্টেট ব্যাঙ্ক কর্তপক্ষ। আমাদের আশঙ্কা এ বারও শাখা বন্ধ করার রাস্তায় হাঁটতে পারেন তাঁরা।’’



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement