×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৮ জুন ২০২১ ই-পেপার

ফের ত্রাণের দাবি হোটেল শিল্পের

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১০ জুন ২০২১ ০৬:৫৮
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

করোনার দুই দফায় যে ক’টি ক্ষেত্র সব চেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত, হোটেল-রেস্তরাঁ-পর্যটন মিলিয়ে আতিথেয়তা শিল্প তাদের অন্যতম। যা মোকাবিলায় গত বছর থেকে বারবার আর্জি জানিয়েও কেন্দ্রের তরফে কার্যত সাহায্য মেলেনি বলে ক্ষোভ প্রকাশ করেছিল হোটেল-রেস্তরাঁর সংগঠন এফএইচআরএআই। এ বার পর্যটনমন্ত্রী প্রহ্লাদ সিংহ পটেল ও ছোট শিল্পমন্ত্রী নিতিন গডকড়ীর সঙ্গে বৈঠকে এই ক্ষেত্রের জন্য দ্রুত নির্দিষ্ট দ্রুত ত্রাণ প্রকল্পের সুপারিশ করলেন সংগঠনের চার শীর্ষকর্তা।

এফএইচআরএআই-এর দাবি, এই শিল্পের মাথায় প্রায় ৬০,০০০ কোটি টাকার দেনা। ২০১৯-২০ সালে ১.৮২ লক্ষ কোটি টাকার ব্যবসা হলেও গত অর্থবর্ষে তার প্রায় ৭৫% মুছে গিয়েছে। সংগঠনের ভাইস প্রেসিডেন্ট গুরবক্সিশ সিংহ কোহালি বুধবার বলেন, ‘‘করোনা আতিথেয়তা শিল্পকে প্রায় ধ্বংস করেছে। নিয়মিত ভাবে ঝাঁপ বন্ধ হচ্ছে সংস্থার। বাড়ছে অনুৎপাদক সম্পদ। সঙ্কট কাটাতে নির্দিষ্ট ত্রাণ প্রকল্পের আর্জি মন্ত্রীদের জানিয়েছি।’’ আবেদন করা হয়েছে প্রিন্সিপাল আর্থিক উপদেষ্টা সঞ্জীব সান্যালের কাছেও।

এপ্রিল থেকে ৮-১০ শতাংশের বেশি আয় হয়নি, দাবি করে সংগঠনের যুগ্মসচিব প্রদীপ শেট্টি বলেন, ‘‘আমাদের ব্যবসা করার অধিকার নিয়ে নেওয়া হয়েছে। কিন্তু ঋণদাতাদের ঋণ ও সুদ আদায়ের অধিকার বজায় আছে।’’ অবস্থা সামলাতে মূলত নগদের জোগান, ঋণের শর্ত শিথিল ও কম সুদে ঋণের বন্দবস্ত করায় জোর দিচ্ছে এফএইচআরএআই। বলা হয়েছে, কেন্দ্রের গ্যারান্টির ভিত্তিতে ১০ বছরের ঋণ প্রকল্প চালু করা ও সরকারের ঘরে পড়ে থাকা বিভিন্ন প্রকল্প ও আয়করের বকেয়া দ্রুত ফেরানোর কথাও। তাঁদের দাবি, সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছে কেন্দ্র।

Advertisement
Advertisement