নির্ধারিত সংখ্যার বাইরে ছাত্র ভর্তি আটকাতে এ বার রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতিতে বিশেষ সফটঅয়্যার ব্যবহারের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়। তার ফলে নির্দিষ্ট আসনের বেশি পড়ুয়াকে বিশ্ববিদ্যালয়ে নথিভুক্ত (রেজিস্ট্রেশন) করানো যাবে না। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য (শিক্ষা) দীপক কর শনিবার বলেন, ‘‘গোটা রেজিস্ট্রেশন  পদ্ধতি  অনলাইনে  হবে। তাতে বিশেষ সফটঅয়্যার ব্যবহার করা হবে। কোনও কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের ঠিক করে দেওয়া সংখ্যার অতিরিক্ত পড়ুয়া ভর্তি করলে রেজিস্ট্রেশনের সময় ওই সফটঅয়্যার তা আটকে দেবে।’’ 

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রের খবর, এ দিন রাজাবাজার সায়েন্স কলেজে অধীনস্থ কলেজগুলির প্রধানদের নিয়ে এ বিষয়ে একটি কর্মশালা হয়েছে। যদিও অধ্যক্ষদের একাংশের মত, এই সিদ্ধান্তে কলেজগুলির কাজের চাপ বেড়ে যাবে। গত কয়েক বছরে বিভিন্ন কলেজে অতিরিক্ত পড়ুয়া ভর্তির অভিযোগ উঠেছে। কিছু ক্ষেত্রে টাকার বিনিময়ে ভর্তির অভিযোগ রয়েছে এবং সেই ঘটনায় শাসক দলের কয়েক জন ছাত্র নেতার নামও জড়িয়েছে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয় ওই অতিরিক্ত পড়ুয়াদের রেজিস্ট্রেশন দিতে চায়নি। তা নিয়ে গোলমালও হয়। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রের দাবি, বিভিন্ন কলেজে অতিরিক্ত ছাত্র ভর্তি আটকাতে তাই এ বার আরও কড়া হতে চাইছেন কর্তৃপক্ষ। 

বস্তুত, বছর দু’য়েক  আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সিদ্ধান্ত নিয়েছিল, নির্দিষ্ট সংখ্যার বাড়তি পড়ুয়াদের রেজিস্ট্রেশন দেওয়া হবে না। পড়ুয়াদের হয় আসন ফাঁকা থাকা কলেজে ভর্তি হতে হবে। না-হলে বিষয় পরিবর্তন করতে হবে। দীপকবাবু জানান, বিভিন্ন বছরের ভর্তির রিপোর্ট দেখে তাঁরা কলেজগুলির  আসন সংখ্যা খতিয়ে দেখছেন। আবার কয়েকটি কলেজ নিজে থেকেই অতিরিক্ত ছাত্র সংখ্যা কমানোর জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের কাছে এই আবেদন করেছে। এগুলি মূলত জেনারেল কোর্সের আসন। আসন সংখ্যা কমানোর পিছনে বিভিন্ন মূল্যায়নের বিষয়ও মাথায় রাখা হচ্ছে।

দিল্লি দখলের লড়াইলোকসভা নির্বাচন ২০১৯