হিন্দু হস্টেল ফেরানোর দাবিতে সোমবার থেকে অনশনে বসেছেন প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের দশ পড়ুয়া। তাঁদের জন্য ক্যাম্পাসে খাট ঢোকাতে গেলে মঙ্গলবার তর্ক বাধল নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে পড়ুয়াদের। ছুটির দিনে বিশ্ববিদ্যালয়ের গেট খুলে খাট ঢোকাতে দিতে চাননি রক্ষীরা। শেষে গেট তালাবন্ধ থাকা অবস্থাতেই তার উপর দিয়ে বেশ কয়েকটি খাট ক্যাম্পাসে ঢুকিয়ে দেন পড়ুয়ারা।

আন্দোলনকারীদের বক্তব্য, টানা ৬০ দিন ক্যাম্পাসে অবস্থান করার পরেও হিন্দু হস্টেল পড়ুয়াদের জন্য বাসযোগ্য করে তোলা হয়নি। অগত্যা সোমবার থেকে রিলে অনশনের পথ বেছে নিয়েছেন তাঁরা। ২০১৫ সালের জুলাই মাসে সংস্কারের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিল হস্টেল। সে সময়ে আবাসিকদের থাকার ব্যবস্থা করা হয় রাজারহাটে। কথা ছিল, ১১ মাসের মধ্যে সংস্কারের কাজ শেষ করে চালু হয়ে যাবে হিন্দু হস্টেল। কিন্তু এত দিনেও তা হয়নি। অগস্ট মাসের গোড়ার দিকে রাজারহাটের হস্টেল থেকে ক্যাম্পাসে এসে অবস্থান শুরু করেছিলেন আবাসিকেরা।

তবে হস্টেলের কাজ দ্রুত করার জন্য এখন বিষয়টিতে হস্তক্ষেপ করেছে সরকারও। উচ্চশিক্ষা সচিব রাজেন্দ্র শুক্লের নেতৃত্বে তৈরি হয়েছে কমিটি। ইতিমধ্যে তারা বৈঠকও করেছে। উপাচার্য অনুরাধা লোহিয়া মঙ্গলবার বলেন, ‘‘ছাত্রদের অনুরোধ করছি অনশন তুলে নিতে। হস্টেল সংস্কারের কাজ খুব দ্রুত হচ্ছে। সরকারও বিষয়টি দেখছে। সংস্কারের কাজ শেষ হয়ে সুরক্ষা শংসাপত্র পেলেই হস্টেল পড়ুয়াদের থাকার জন্য খুলে দেওয়া হবে।’’