বাসে বাদুড়ঝোলা ভিড়। নিরাপদ ফুটপাতের অভাবে তার পাশ দিয়ে বাকি পথচারীদের মতো নিরুপায় হয়ে রাস্তা দিয়েই বাজারের ব্যাগ হাতে হাঁটছিলেন বছর সত্তরের বৃদ্ধা তপতী রায়। খানাখন্দে ভরা রাস্তায় বাস দুলে উঠতে ঝুলতে থাকা যাত্রীদের গায়ে লেগে বৃদ্ধা রাস্তায় পড়ে গেলে তাঁর পায়ের উপর দিয়ে বাসের চাকা
চলে যায়। বুধবার সকালে বাগুইআটির জ্যাংড়ার এই দুর্ঘটনায় সল্টলেকের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই বৃদ্ধার অবস্থা আপাতত স্থিতিশীল হলেও বিপদ কাটেনি।

হাসপাতাল সূত্রের খবর, অস্ত্রোপচারে তপতীদেবীর হাঁটুর নীচ থেকে বাঁ পা বাদ দিতে হয়েছে। ডান পা-ও মারাত্মক ভাবে জখম।

স্থানীয়দের দাবি, এবড়ো-খেবড়ো রাস্তায় গাড়ির দাপটে জ্যাংড়া-বটতলার ওই রাস্তা দিয়ে হাঁটাই যায় না। স্থানীয় বাসিন্দা কে ডি গুপ্ত বলেন, ‘‘রাস্তা খারাপ, তার মধ্যেও বাস রেষারেষি করে!’’ ঘটনাস্থল থেকে তপতীদেবীর বাড়ি খুব দূরে নয়। তপতীদেবীর বাড়ির কাছে জঞ্জালের স্তূপ জমে রাস্তা আরও সঙ্কীর্ণ হয়ে গিয়েছে। ক্ষোভ উগরে দিয়ে বৃদ্ধার এক আত্মীয় বলেন, ‘‘এতদিন ধরে রাস্তার এই অবস্থা, কারও ভ্রূক্ষেপ নেই।’’

পুলিশ জানায়, এ দিন উত্তেজিত জনতা যে বাসের চাকার তলায় দুর্ঘটনা, সেটির পাশাপাশি আর একটি বাসেও ভাঙচুর চালায়। পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।