হেরিটেজ তকমা বজায় রেখে টাউন হলের সংস্কার এগোচ্ছে বলে মেয়র ফিরহাদ হাকিমকে জানিয়ে দিলেন রুরকি আইআইটি-র বিশেষজ্ঞেরা। দুশো বছরের পুরনো ঐতিহ্যবাহী টাউন হল বিল্ডিংটি কালের নিয়মে দুর্বল হয়ে পড়েছিল। খসে পড়ছিল পলেস্তরা। তা ছাড়া ভূমিকম্প প্রতিরোধের ব্যবস্থাও সেখানে ছিল না। সে সব ভেবে কয়েক বছর আগেই সংস্কারের পরিকল্পনা নেয় কলকাতা পুরসভা। এটি গ্রেড-ওয়ান হেরিটেজ বিল্ডিং হওয়ায় কাঠামো বজায় রেখে কাজ করার জন্য রুরকি আইআইটি-র সহায়তা নেওয়া হয়। তাঁদের দেওয়া নকশা মেনে ২০১৭ সাল থেকে কাজটা করছে রাজ্য পূর্ত দফতর। যার খরচ পড়ছে প্রায় ২৮ কোটি টাকা।

সেই কাজ কতটা এগিয়েছে, তা দেখতে শনিবার টাউন হলে যান মেয়র-সহ পুরসভা এবং পূর্ত দফতরের পদস্থ ইঞ্জিনিয়ারেরা। পরিদর্শন করার আগে রুরকির বিশেষজ্ঞদের কাছে মেয়র জানতে চান, আপনাদের নকশা মেনেই কাজ হচ্ছে তো? রুরকির পক্ষে মহেশ শর্মা উত্তর দেন, ‘‘ঠিক মতো কাজ হচ্ছে।’’ এর পরে রুরকির দুই বিশেষজ্ঞকে নিয়ে টাউন হল ঘুরে দেখেন মেয়র। টাউন হলের নীচে থাকা সুড়ঙ্গের ভিতরেও যান তাঁরা। পরে মেয়র বলেন, ‘‘আমরা চেয়েছিলাম অক্টোবরেই কাজ শেষ হোক। কিন্তু বিশেষজ্ঞেরা জানিয়েছেন ডিসেম্বরে সম্পূর্ণ হবে।’’ ২০২০ সালে নতুন রূপে টাউন হল সাধারণের জন্য খুলে দেওয়া হবে বলে জানান তিনি।