• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

আগুনে ভস্মীভূত আইডি-র রেকর্ড রুম ও গুদাম

Beleghata Id
বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালে আগুন নেভানোর কাজ চলছে। শুক্রবার। ছবি: স্বাতী চক্রবর্তী

আগুনে পুড়ে গেল বেলেঘাটা আইডি হাসপাতালের একটি গুদাম ও রেকর্ড রুম। শুক্রবার বিকেলের ঘটনা। তবে হতাহতের কোনও খবর নেই। হাসপাতালের উপাধ্যক্ষ তথা সুপার আশিস মান্না জানিয়েছেন, ওই গুদামটি রোগীদের ভবন থেকে অনেক দূরে। ফলে রোগীদের কারও কোনও ক্ষতি হয়নি। তবে সরকারি সূত্রের দাবি, ওই ঘরে থাকা হাসপাতালের যাবতীয় নথিপত্র পুড়ে গিয়েছে।

আইডি হাসপাতাল গত কয়েক মাস ধরেই কোভিড হাসপাতাল হিসেবে কাজ করছে। বহু রোগী সেখানে ভর্তি রয়েছেন। ফলে আগুনের খবরে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছিল। সরকারি সূত্রেও আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে। ওই সূত্রের দাবি, রেকর্ড রুমের পাশে আরও একটি গুদাম রয়েছে। সেখানে অক্সিজেন সিলিন্ডার, স্যানিটাইজ়ারের মতো অতি দাহ্য বস্তু ছিল। আগুন লাগার সঙ্গে সঙ্গে সেগুলি সরিয়ে ফেলা হয়। না-হলে ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটতে পারত।

তবে দমকল ও পুলিশ সূত্রে প্রাথমিক ভাবে জানা গিয়েছে, বিকেল ৪টে ৪০ মিনিট নাগাদ আগুন লাগার খবর পেয়ে দমকলের পাঁচটি ইঞ্জিন ঘটনাস্থলে যায়। পুলিশের একটি বড় দলও সেখানে পৌঁছয়। ভস্মীভূত ঘরটিতেও স্যানিটাইজ়ার-সহ নানা দাহ্য বস্তু ও রাসায়নিক মজুত ছিল। তাই আগুন দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। গুদামের ভিতরে লেলিহান শিখাও দেখা যায়। কালো ধোঁয়ায় ঢেকে যায় চারপাশ। প্রাথমিক ভাবে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে হিমশিম খেতে হয় দমকলকর্মীদের। 

কোভিড হাসপাতালে এমন অগ্নিকাণ্ড নিয়ে স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন উঠেছে। অনেকেই বলছেন, আগুন আরও বেশি ছড়িয়ে পড়লে কোভিডের মতো সংক্রামক রোগে আক্রান্ত লোকজনকে দ্রুত সরিয়ে নেওয়াও মুশকিল হত। প্রাথমিক তদন্তের পরে দমকলের এক সূত্রের দাবি, বৈদ্যুতিক লাইনে শর্ট সার্কিটের জেরেই সম্ভবত আগুন লেগেছে। তবে এ ব্যাপারে বিশদে তদন্ত হবে। পাঠানো হতে পারে ফরেন্সিক দলকেও।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন