যাদবপুর থানা এলাকার লর্ডস মোড়ের কাছে প্রিন্স গোলাম মহম্মদ শাহ রোডে ভস্মীভূত বাজারে নতুন করে প্লাস্টিকের ছাউনি লাগানো যাবে না বলে জানিয়েছে পুরসভা। তবে আগুনে পুড়ে যাওয়া ওই জায়গায় ব্যবসায়ীরা এখনই বসতে পারবেন কি না, তা নিয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও সিদ্ধান্ত হয়নি।

রবিবার মধ্যরাতে কলকাতা পুরসভার ৯৩ নম্বর ওয়ার্ডের অন্তর্ভুক্ত ওই এলাকার দোকানে আগুন লাগে। তুলোর মতো দাহ্য বস্তু ভর্তি থাকায় নিমেষে ভস্মীভূত হয়ে যায় ১৭টি দোকান। ভবিষ্যতে এমন ঘটনা ঠেকাতে ওই বাজারে প্লাস্টিকের ছাউনির ব্যবহার বন্ধ করতে চাইছে পুর প্রশাসন। এর আগে গড়িয়াহাট বাজারে অগ্নিকাণ্ডের পরে ফুটপাত থেকে প্লাস্টিকের ছাউনি সরানোর নির্দেশ দিয়েছিল পুরসভা। লর্ডসের মোড়ের এই বাজার থেকেও তার পরে প্লাস্টিকের ছাউনি সরানো হয়। পরিবর্তে আসে টিনের ছাউনি। এ দিনের অগ্নিকাণ্ডের পরে যাতে সেখানে প্লাস্টিকের ছাউনি ফেরত না আসে, সে দিকেই নজর রাখছে পুরসভা।

মধ্যরাতের অগ্নিকাণ্ডের পরে সোমবার ওই এলাকা ছিল অনেকটাই স্বাভাবিক। ঘটনাস্থলে গিয়ে এ দিন দেখা গেল, পুরকর্মী ছাড়াও স্থানীয় ব্যবসায়ীদের একাংশ ধ্বংসস্তূপ পরিষ্কারের কাজে ব্যস্ত। অনেকেই রাস্তার ধারে মালপত্র নিয়ে বসেছেন। স্থানীয় বরো চেয়ারম্যান তপন দাশগুপ্ত সোমবার বলেন, ‘‘খোঁজ নিয়ে জানতে পেরেছি, এঁরা অত্যন্ত দরিদ্র। অনেকেই দীর্ঘদিন এখানে ব্যবসা করছেন। ব্যবসায়ীদের একাংশ জানিয়েছেন, তাঁদের কোনও ট্রেড লাইসেন্স নেই।’’ 

পুর কর্মীরা জানিয়েছেন, ভস্মীভূত দোকানগুলির যে সমস্ত অংশ বিপজ্জনক ছিল তা ভেঙে ফেলা হয়েছে। পুলিশ ফুটপাথের ওই অংশটুকু ব্যারিকেড করে রেখেছে। তবে এ দিন ছুটির দিন হওয়ায় এই রাস্তায় ট্র্যাফিকের কোনও সমস্যা হয়নি।