বিধাননগরের নতুন মেয়র হিসেবে শনিবার শপথ নিলেন কৃষ্ণা চক্রবর্তী। তবে বিধাননগরের প্রাক্তন মেয়র সব্যসাচী দত্ত এ দিন পুরভবনে শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে ছিলেন না। তিনি ফোনে জানান, ছুটিতে বিদেশে রয়েছেন।

জুলাই মাসে মেয়র পদে ইস্তফা দেন সব্যসাচী দত্ত। এর পরে মেয়রের দৌড়ে প্রথম যাঁর নাম ভেসে ওঠে, সেই তাপস চট্টোপাধ্যায় ডেপুটি মেয়র হিসেবে থাকবেন বলে আগেই জানিয়েছেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। এ দিন তিনি বলেন, ‘‘আগের মেয়রকে সরানোর দাবি ছিল। তা হয়েছে। কৃষ্ণা চক্রবর্তীর অনেক অভিজ্ঞতা। সকলকে নিয়ে একযোগে এ বার কাজ হবে।’’ মেয়র হিসেবে নাম ভেসেছিল দমকলমন্ত্রী সুজিত বসুরও। এ দিন শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, ‘‘কৃষ্ণাদি আগে বিধাননগর পুরসভায় চেয়ারপার্সনের দায়িত্ব সামলেছেন। সকলকে নিয়ে তিনি নাগরিক পরিষেবা দেবেন।’’

রাজ্য সরকারের পক্ষে হাজির ছিলেন পঞ্চায়েতমন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়, খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, সাংসদ কাকলি ঘোষদস্তিদার, কারিগরি শিক্ষামন্ত্রী পূর্ণেন্দু বসু, স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য, সাংসদ দোলা সেন, বনমন্ত্রী ব্রাত্য বসু, নারী, শিশু ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রী শশী পাঁজা, বিধানসভায় দলের মুখ্য সচেতক নির্মল ঘোষ, বিধাননগরের পুলিশ কমিশনার লক্ষ্মীনারায়ণ মিনা প্রমুখ। 

মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় বলেন, ‘‘শুধু রাজনৈতিক কারণে নয়, কৃষ্ণার যোগ্যতা ও দলে তাঁর গ্রহণযোগ্যতার কারণেই তিনি এই দায়িত্ব পেলেন। সকল সহকর্মী তাঁর সঙ্গে সহযোগিতা করবেন এই আশা রাখি।’’ 

মেয়র কৃষ্ণা চক্রবর্তী বলেন, ‘‘মুখ্যমন্ত্রী তথা দলনেত্রীর দেখানো পথেই মানুষের সেবা করব। একযোগে উন্নয়নের কাজ হবে। গুরুত্ব দেওয়া হবে রাজারহাট-গোপালপুরের ক্ষেত্রে।’’