যাঁর ব্যাগ আসার কথা ছিল কলকাতায়, তাঁরটা চলে গিয়েছিল দিল্লি। আর দিল্লির বাসিন্দার ব্যাগ চলে এসেছিল কলকাতায়।

এমন বাক্স বদলের ঘটনার সূত্রপাত হয়েছিল অস্ট্রিয়ায়। সেখানে এয়ার ইন্ডিয়ার কাউন্টারে বসা এক কর্মীর ক্ষণিকের ভুলে। ভিয়েনা থেকে দিল্লি ঘুরে মঙ্গলবার কলকাতায় নেমে বাপ্পাদিত্য মুখোপাধ্যায় নামে এক যাত্রী দেখেন, তাঁর একটি মাত্র ব্যাগ আসেনি। বিমানবন্দরে অভিযোগ জানাতে গিয়ে দেখেন, তাঁর বোর্ডিং কার্ডের পিছনে ব্যাগেজ ট্যাগটিতে তাঁর নামের বদলে লেখা শ্যামনা মেহরোত্রার নাম। নিবাস নয়াদিল্লি। আঁতকে ওঠেন বাপ্পাদিত্য। ভিয়েনা বিমানবন্দরে চেক-ইন কাউন্টারে ব্যাগ তুলে দেওয়ার সময়ে বোর্ডিং কার্ডের পিছনের ট্যাগটি পরখ করে দেখেননি। ফলে কলকাতায় নেমে বাপ্পাদিত্যের মাথায় হাত! 

তবে ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই বাপ্পাদিত্যের ব্যাগ খুঁজে পাওয়া গিয়েছে বলে এয়ার ইন্ডিয়া সূত্রে খবর। মনে করা হচ্ছে, ভিয়েনা থেকে একই উড়ানে বাপ্পাদিত্যের সঙ্গে শ্যামনাও আসেন দিল্লিতে। বাপ্পাদিত্যের ব্যাগেজ ট্যাগ চলে যায় তাঁর কাছে। ফলে বাপ্পাদিত্যের ব্যাগ দিল্লিতেই রয়ে যায় ও শ্যামনার ব্যাগ চলে আসে কলকাতায়। শ্যামনাও মঙ্গলবার দিল্লিতে অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ বার দু’জনের ব্যাগই ফেরত পাঠাচ্ছে উড়ান সংস্থা।

বাপ্পাদিত্য জানিয়েছেন, যৌন সংখ্যালঘুদের অধিকার নিয়ে তিনি কাজ করেন। জুলাইয়ে ভিয়েনায় সেই অধিকার নিয়ে গৌরব মাস পালন করা হচ্ছে। ভারত থেকে প্রতিনিধি হিসেবে তিনি সেখানে গিয়েছিলেন।