অ্যাপ-ক্যাব সংস্থাগুলি যাত্রীদের থেকে চড়া ভাড়া আদায় করলেও চালকদের ন্যায্য প্রাপ্য থেকে বঞ্চিত করছে বলে অভিযোগ করলেন ওয়েস্ট বেঙ্গল অনলাইন ক্যাব অপারেটর্স গিল্ডের  সভাপতি তথা রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহণমন্ত্রী মদন মিত্র। শনিবার অনলাইন ক্যাবচালকদের সংগঠনের তরফে ডাকা সাংবাদিক বৈঠকে তিনি বলেন, ‘‘অ্যাপ-ক্যাবের চালকদের প্রাপ্য মেটানোর ক্ষেত্রে সংস্থাগুলি সরকারি নির্দেশ মানে না। সারা মাস গাড়ি চালিয়েও ব্যাঙ্কের ঋণ মেটাতে হিমশিম খাচ্ছেন চালকেরা।’’

সম্প্রতি এক ক্যাব সংস্থার কিনে দেওয়া ৫০টি গাড়ির মধ্যে ২২টির চাবি চালকেরা ফিরিয়ে দিয়েছেন বলেও অভিযোগ করেন প্রাক্তন পরিবহণমন্ত্রী। অ্যাপ-ক্যাব সংস্থাগুলি কোনও অভিযোগ পেলেই তা খতিয়ে না দেখে যখন-তখন চালকদের আইডি ব্লক করে তাদের ভাড়া খাটার সুযোগ থেকে বঞ্চিত করছে বলেও অভিযোগ। 

সম্প্রতি সংগঠনের পক্ষ থেকে এ নিয়ে পরিবহণমন্ত্রীর কাছেও অভিযোগ জমা পড়ে। তার ভিত্তিতে অনলাইন ক্যাব সংস্থার প্রতিনিধিদের গত মাসে ডেকে পাঠানো হয়। কিন্তু একটি বড় সংস্থার কেউ বৈঠকে হাজির হননি। এ নিয়ে ক্যাবচালকদের মধ্যে ক্ষোভ ছড়ায়। কসবার কাছে বাইপাসে অশান্তিও হয়। ১০ তারিখ ফের অ্যাপ-ক্যাব সংস্থাগুলির পাশাপাশি চালকদের সংগঠনকেও ডেকেছে পরিবহণ দফতর। তার আগে অ্যাব-ক্যাব চালকদের সংগঠন অবশ্য সংস্থাগুলির ‘অমানবিক’ আচরণের বিরুদ্ধে পথে নামছে। আগামী সোমবার থেকে কালো ব্যাজ পরে কাজে যাবেন চালকেরা। বৈঠকে অভিযুক্ত সংস্থাটি সাড়া না দিলে ১৪ বা ১৫ তারিখ মিছিল করা হবে বলে জানান প্রাক্তন পরিবহণমন্ত্রী। সমস্যা মেটাতে পরিবহণ দফতরকে নিজস্ব অ্যাপ-ক্যাব পরিষেবা চালুর আবেদনও জানিয়েছেন মদনবাবু।