• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

বন্ধু সেজে মারধর, ছিনতাই

Advertisement

বন্ধু সেজে এক ব্যক্তির সঙ্গে আলাপ করার পর অভিনব কায়দায় তাঁর থেকে ল্যাপটপ, মোবাইল ও নগদ টাকা ছিনতাই করে নিল এক দল দুষ্কৃতী। গত সোমবার রাতে লিলুয়া স্টেশন সংলগ্ন পটুয়াপাড়ার ঘটনা। শুক্রবার ওই বন্ধুবেশী দুষ্কৃতীদের দু’জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। খোঁজ চলছে ছিনতাই হওয়া জিনিস-সহ বাকি দুষ্কৃতীদের। ধৃতদের নাম অমিত যাদব এবং শুভাশিস ঘোষ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বালির বিবেকপল্লি ঘোষপাড়ার বাসিন্দা পার্থসারথি ভট্টাচার্যের সঙ্গে সম্প্রতি ট্রেনে যাতায়াতের সময়ে অমিত ও শুভাশিস যেচে আলাপ করেন। পার্থসারথিবাবু আদতে ত্রিপুরার আগরতলার বাসিন্দা। কর্মসূত্রে বালিতে থাকেন। পুলিশ জানায়, পার্থবাবুর সঙ্গে আলাপ করার পরে ওই দুই যুবক তাঁকে গল্পের ছলে জানান, তাঁরা পুরনো ইলেকট্রনিক্স জিনিসপত্র কেনবেচা করেন। এ কথা জানার পর পার্থবাবু বলেন, তাঁর পুরনো ল্যাপটপটি তিনি বিক্রি করতে চান। ভাল দাম পেলে দিয়ে দেবেন। এর পরেই ওই দু’জন তাঁকে গত সোমবার রাত সাড়ে ৮টা নাগাদ ল্যাপটপ নিয়ে লিলুয়া স্টেশনের কাছে পটুয়াপাড়ায় আসতে বলেন।

পুলিশ জানায়, দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করার পর ওই দুই যুবক এসে জানান তাঁদের এক পরিচিত ল্যাপটপটি কিনবেন। তিনি আসছেন। পুলিশ জানায়, এর পরে ওই দু’জন পার্থবাবুকে ফের অপেক্ষা করতে বলে চলে যান। কিছুক্ষণ পরেই চার জন দুষ্কৃতী আচমকা পার্থবাবুকে ঘিরে ফেলে মারধর শুরু করে। তাঁর কাছ থেকে ল্যাপটপ, মোবাইল ও নগদ পাঁচ হাজার টাকা কেড়ে নিয়ে চম্পট দেয় তারা। শুক্রবার লিলুয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেন পার্থবাবু। তদন্তে নেমে পুলিশ অভিযুক্ত দুই যুবককে গ্রেফতার করে। তদন্তকারীরদের দাবি, জিজ্ঞাসাবাদের সময় ধৃতেরা ছিনতাইয়ের ঘটনা স্বীকার করেছে এবং বাকি অপরাধীদের নামও বলেছে। হাওড়া সিটি পুলিশের এক পদস্থ কর্তা জানান, শনিবার ধৃতদের আদালতে তোলা হলে তাদের দশ দিনের পুলিশই হেফাজত হয়। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করে ছিনতাই হওয়া জিনিসপত্র ও বাকি অভিযুক্তদের খোঁজে তল্লাশি হবে।

সবাই যা পড়ছেন

Advertisement

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন