মেয়র পারিষদদের পুজো এ বার থেকে অংশ নিতে পারবে না ‘কলকাতাশ্রী’ প্রতিযোগিতায়। বুধবার কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম এ বছরের ‘কলকাতাশ্রী’ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করে এ কথা জানিয়ে দেন। এর ফলে পুরসভার পাঁচ জন মেয়র পারিষদের পুজোকে এ বার ওই প্রতিযোগিতা থেকে সরে দাঁড়াতে হবে।

পুর কর্তৃপক্ষের বিচারে যেগুলি শহরের সেরা পুজো, সেই সব পুজো কমিটিকে ৫০ হাজার টাকা করে পুরস্কার দেয় পুরসভা। গত কয়েক বছর ধরেই এই রেওয়াজ চলছে। ওই পুরস্কারের নামই ‘কলকাতাশ্রী’। বিগত কয়েক বছরের অভিজ্ঞতায় দেখা গিয়েছে, নির্বাচিত তালিকায় মেয়র পারিষদদের পুজোগুলি থাকেই। প্রায় ১০০টি পুজো কমিটিকে ওই পুরস্কার দেওয়া হয়।

পুরসভা সূত্রের খবর, পুরস্কারের টাকা দেয় সিইএসসি। এ দিন পুর ভবন চত্বরে ‘কলকাতাশ্রী’র সূচনা করেন মেয়র ফিরহাদ হাকিম। প্রতিযোগিতার আবেদনপত্র নেওয়ার কাজ শুরু হয় ঢাক বাজিয়ে এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে। সেখানে হাজির ছিলেন ক্রিকেটার সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়, মেয়র পারিষদ দেবাশিস কুমার প্রমুখ। সেখানেই মেয়র বলেন, ‘‘কলকাতাশ্রী পুরসভার কর্মসূচি। তাই মেয়র হিসেবে আমি যে পুজো কমিটির সঙ্গে যুক্ত, তাদের ওই প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়া ঠিক হবে না। বাকি যে মেয়র পারিষদেরা পুজো কমিটির প্রধান, তাঁদেরও কলকাতাশ্রী থেকে সরে দাঁড়ানো উচিত।’’ দেবাশিসবাবুও জানিয়ে দেন, এ বার থেকে কোনও মেয়র পারিষদের পুজো ওই প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে না। প্রসঙ্গত, অতীন ঘোষ, রতন দে, দেবব্রত মজুমদার, তারক সিংহেরা মেয়র পারিষদ হওয়ায় তাঁদের পুজো এ বার অংশ নিতে পারবে না।