ভোগান্তির যাবতীয় আশঙ্কা জিইয়ে রেখে পুজোর আগে আবার পরিষেবা বাড়াল মেট্রো।

নতুন রেক আসেনি। তবুও এখন থেকে সারা দিনে ২৭৪টির বদলে ২৯৮টি মেট্রো চলবে। তা-ও দমদম থেকে টালিগঞ্জ পর্যন্ত নয়, সব ট্রেন চলবে আগের মতো দমদম থেকে কবি সুভাষ পর্যন্তই। এমনই ঘোষণা করলেন মেট্রো কর্তৃপক্ষ।

বেশ কিছু দিন ধরেই মেট্রোর পরিষেবা নিয়ে বিভিন্ন অভিযোগ উঠছিল। বিশেষ করে পুরনো রেকগুলির বিভিন্ন যান্ত্রিক ত্রুটিতে মাঝপথে আটকে যাওয়া, দরজা না খোলা এবং মাঝেমধ্যে পরপর ট্রেন বাতিল করে দেওয়ায় যাত্রীরা দুর্ভোগে পড়ছিলেন। তারই প্রেক্ষিতে যাত্রীদের সুস্থ পরিষেবা দেওয়ার জন্য নতুন করে বেশ কিছু ব্যবস্থা নিয়েছে মেট্রো। বৃহস্পতিবার সেগুলিই সাংবাদিকদের জানিয়েছেন মেট্রোর জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) মূলচাঁদ চহ্বান। যদিও রেক না বাড়িয়ে এত সুবিধে কী ভাবে দেওয়া সম্ভব হবে কর্তৃপক্ষের তরফে, তা নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করছেন যাত্রীদের অনেকেই।

এ দিন জিএম দাবি করেন, ‘‘নতুন রেক আসেনি। তবে পুজোর ভিড়ের কথা মাথায় রেখে যাতে পরিষেবা ঠিক রাখা যায়, তার সব ব্যবস্থাই হয়েছে। এমনকী, নজর দেওয়া হচ্ছে আইন-শৃঙ্খলার দিকেও।’’ সে সব দিক ঠিক রাখার জন্যই আবার পুরনো যাত্রাপথে ফিরছে মেট্রো। পুজোর আগেই ওই ব্যবস্থা চালু করে দেওয়া হবে বলে জানান জিএম।

মেট্রো সূত্রের খবর, পুজোর তিন দিন (সপ্তমী, অষ্টমী ও নবমী) যথারীতি দুপুর ১-৪০ মিনিট থেকে চালু হবে মেট্রো পরিষেবা। চলবে পর দিন ভোর ৪টে পর্যন্ত। চতুর্থী থেকে ষষ্টী পর্যন্ত পরিষেবা চালু হবে সকাল ৭-১৫ মিনিট থেকে। চলবে রাত ১০-১০ মিনিট পর্যন্ত। তবে গত বছরের তুলনায় এ বছর পুজোর সময়ে পরিষেবা বাড়ানো হচ্ছে ১১ শতাংশ।

যাত্রীদের জন্য আরও একটি স্বস্তির সংবাদ শুনিয়েছেন জেনারেল ম্যানেজার। জানিয়েছেন, এ বার থেকে মেট্রোর যাত্রা পথে কোনও বিঘ্ন ঘটলে তা কন্ট্রোল থেকে সরাসরি জানিয়ে দেওয়া হবে যাত্রীদের। যান্ত্রিক ত্রুটি মেরামতের জন্য ঠিক অপেক্ষা করতে হবে ১০ মিনিট। তার পরেই জানিয়ে দেওয়া হবে ওই ট্রেন আর চলানো যাবে কি না। মেট্রোর ওই নতুন পাবলিক অ্যাড্রেস সিস্টেমের সাহায্যে বাজানো হবে চণ্ডীপাঠও।

গত বছর পুজোয় কালীঘাটে ভিড়ের চাপে গোলমাল হয়েছিল। তারই প্রেক্ষিতে এ বছর পুজোর দিনগুলিতে প্ল্যাটফর্ম ও ট্রেনে ভিড় সামলাতে বিশেষ পুলিশি ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ ব্যাপারে কলকাতা পুলিশ ও রাজ্য পুলিশের সহযোগিতা নিয়ে ওই ব্যবস্থা করছেন মেট্রো কর্তৃপক্ষ। তাঁরাই আইন-শৃঙ্খলাও দেখভাল করবেন।