তিনি ‘শিক্ষারত্ন’ পুরস্কার পেয়েছেন। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সেই শিক্ষক ওমপ্রকাশ মিশ্রের বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ আনলেন ছাত্রছাত্রীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ওই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে মূলত অপমানজনক মন্তব্য করা, দুর্ব্যবহার এবং অসহযোগিতার অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ জমা পড়েছে উপাচার্যের দফতরেও। ওমপ্রকাশের বিরুদ্ধে অভিযোগ, এক ছাত্র তাঁকে কিছু সই করতে দিয়েছিলেন। ওই ছাত্র যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়েই পড়াশোনা করেন (বোনাফায়েড স্টুডেন্ট)। ওমপ্রকাশ তাঁকে ‘বোনাফায়েড’ শব্দের অর্থ জিজ্ঞাসা করেন। অভিযোগ, ছাত্রটি তা বলতে না পারায় তিনি ক্ষুব্ধ হয়ে তাঁর সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেন। এমনকি অভিধানে ‘বোনাফায়েড’ শব্দের অর্থ দেখেও আসতে বলেন ওই ছাত্রকে। ওই অধ্যাপকের বিরুদ্ধে এমনই অভিযোগ এনেছেন আরও কয়েক জন পড়ুয়া।

সম্প্রতি কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন ওমপ্রকাশ। অভিযোগের সত্যতা জানতে তাঁর সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘‘কারও অভিযোগ থাকলে সে আমার সঙ্গে সরাসরি কথা বলুক। আর কাউকে কোনও শব্দের অর্থের জন্য অভিধান দেখতে বললে তাতে দুর্ব্যবহারের কী আছে?’’ যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের সহ-উপাচার্য চিরঞ্জীব ভট্টাচার্য অবশ্য বলেন, ‘‘অভিযোগ পেয়েছি। সব পক্ষের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি দেখা হচ্ছে।’’