• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

কাল থেকে তিন দিন বন্ধ শিয়ালদহ উড়ালপুল

Sealdah Flyover
ফাইল চিত্র।

ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর সুড়ঙ্গ নির্মাণের জন্য শুক্রবার ভোর থেকে সোমবার ভোর পর্যন্ত বন্ধ থাকবে শিয়ালদহ উড়ালপুল বা বিদ্যাপতি সেতু। লালবাজার জানিয়েছে, ওই তিন দিন উড়ালপুলের পাশাপাশি তার নীচে শিশির মার্কেটের বেশ কিছু দোকানও বন্ধ রাখা হবে। বিদ্যাপতি সেতু বন্ধ থাকায় সমস্ত যানবাহন ক্রিক রো, বি বি গাঙ্গুলি স্ট্রিট, আমহার্স্ট স্ট্রিট, কলেজ স্ট্রিট, মহাত্মা গাঁধী রোড, নির্মলচন্দ্র স্ট্রিট এবং এসএন ব্যানার্জি রোড দিয়ে ঘুরিয়ে দেওয়া হবে। ওই তিন দিন ওই সমস্ত রাস্তায় পার্কিং পুরোপুরি নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এ ছাড়া, কোলে মার্কেটে রাতে আসা পণ্যবাহী গাড়িগুলিকেও ঘুরপথে আসতে হবে। 

লালবাজার জানিয়েছে, গত বছর বিদ্যাপতি সেতুর রক্ষণাবেক্ষণের কাজের জন্য তিন দিন বন্ধ রাখা হয়েছিল যান চলাচল। বাস ও গাড়িগুলিকে পাঠানো হয়েছিল বিকল্প পথে। এ বারও সেই একই পরিকল্পনা অনুযায়ী চলা হবে। মৌলালি থেকে রাজাবাজারমুখী গাড়ি বা বাসকে এসএন ব্যানার্জি রোড, ধর্মতলা, চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ, কলুটোলা, কলেজ স্ট্রিট দিয়ে পুরনো পথে ফিরিয়ে দেওয়া হবে। আবার মানিকতলা থেকে মৌলালির দিকে আসা গাড়িকে বিবেকানন্দ রোড, আমহার্স্ট স্ট্রিট, বি বি গাঙ্গুলি স্ট্রিট, নির্মলচন্দ্র স্ট্রিট, ওয়েলিংটন, লেনিন সরণি দিয়ে পাঠানো হবে। তবে ছোট গাড়ি যে কোনও লেন দিয়েই বেরিয়ে যেতে পারবে। আবার মানিকতলা থেকে যে সব গাড়ি শিয়ালদহ স্টেশনে যাবে, তাদের নারকেলডাঙা মেন রোড, ফুলবাগান, বেলেঘাটা হয়ে সেখানে পৌঁছতে হবে। রাজাবাজারের দিক থেকে যে সব গাড়ি হাওড়া স্টেশনের দিকে যাবে, তারা উড়ালপুলের মহাত্মা গাঁধী রোড র‌্যাম্প হয়ে সোজা যেতে পারবে। 

পুলিশ সূত্রের খবর, ওই উড়ালপুলের মধ্যবর্তী অংশটুকুই কেবল বন্ধ থাকছে। এক দিকে মহাত্মা গাঁধী রোড র‌্যাম্প , অন্য দিকে বেলেঘাটা র‌্যাম্প। এই দুইয়ের মাঝের অংশ বন্ধ থাকবে। এক দিকে, টালা সেতু না থাকায় উত্তর কলকাতার বিভিন্ন রাস্তায় গাড়ির চাপ এমনিতেই বেশি। তার পরে মাসের শুরুতে পুজোর কেনাকাটার জন্য ভিড় হতে পারে। এ সময়ে শিয়ালদহ উড়ালপুলের মতো রাস্তা বন্ধ থাকলে বহু মানুষ ভোগান্তিতে পড়বেন বলেই আশঙ্কা করা হচ্ছে। তবে লালবাজার আশাবাদী, ওই তিন দিন খুব বেশি যানজট হবে না। এক পুলিশকর্তার ব্যাখ্যা, এক দিকে লোকাল ট্রেন বন্ধ। তার সঙ্গে গাঁধী জয়ন্তীর ছুটি। পরের দুটো দিন শনিবার ও রবিবার। ট্র্যাফিক পুলিশের এক কর্তা বলেন, ‘‘পুজোর আগে এই সব কারণেই ওই তিনটে দিন বেছে নেওয়া হয়েছে মেট্রোর কাজের জন্য।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন