• ফিরোজ ইসলাম
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

যাত্রারম্ভের আগেই অ্যাপের বিভ্রাটে মেট্রোর যাত্রীরা

logo
মেট্রোর অ্যাপের নয়া লোগো।

করোনা পরিস্থিতিতে অনলাইনে স্মার্ট কার্ড রিচার্জের পাশাপাশি ই-পাস পেতেও ভরসা কলকাতা মেট্রোর সরকারি অ্যাপ। অথচ, সেই অ্যাপ নিয়ে এখন বিভ্রান্তি চরমে। আগামী সোমবার থেকে মেট্রোয় যাত্রী পরিবহণ শুরু হচ্ছে। গুগল প্লে স্টোরে মেট্রোর সরকারি অ্যাপ খুঁজলে দু’রকম লোগো দেওয়া দু’টি অ্যাপ দেখা যাচ্ছে। একটিতে ভারতীয় রেলের নিজস্ব লোগো। অন্যটিতে কলকাতা মেট্রোর পুরনো এসি রেকের ছবি। তবে কলকাতা মেট্রোর জেনারেল ম্যানেজার মনোজ জোশী বুধবার জানান, ভারতীয় রেলের ছবি দেওয়া অ্যাপটি সরিয়ে নিতে গুগলকে চিঠি দেওয়া হয়েছে। এসি রেকের ছবি দেওয়া অ্যাপটিই মেট্রোর একমাত্র সরকারি অ্যাপ।

কেন এই বিপত্তি? মেট্রো সূত্রের খবর, গত ১৫ অগস্ট মেট্রোর অ্যাপের উদ্বোধন করেন সংস্থার জি এম। কিন্তু মেট্রোর নিজস্ব ওয়েবসাইটে দেওয়া লিঙ্ক ছাড়া অন্যত্র, অর্থাৎ প্লে স্টোর বা অ্যাপল স্টোরে ওই অ্যাপ পাওয়া যাচ্ছিল না। অ্যাপটির সুরক্ষা শংসাপত্র (সিকিওরিটি সার্টিফিকেশন) না থাকায় সেটি ডাউনলোড করতে সমস্যা হচ্ছিল। সরকারি ভাবে ওই অ্যাপ চালুর আগে বিষয়টি গুগলকে চিঠি দিয়ে জানান মেট্রো কর্তৃপক্ষ। তখন গুগল মেট্রোর অ্যাপে ভারতীয় রেলের লোগো ব্যবহার নিয়ে আপত্তি তোলে। তারা জানায়, ভারতীয় রেল এবং মেট্রোর একই লোগো হওয়ায় বিভ্রান্তি তৈরি হচ্ছে এবং তা গুগলের সুরক্ষা সংক্রান্ত নীতির ক্ষেত্রে অন্তরায় হয়ে দাঁড়াচ্ছে। মেট্রো কর্তৃপক্ষ নিজেদের ভারতীয় রেলের অংশ বলে দাবি করলেও নিষ্পত্তি হয়নি। ফলে মেট্রোর অ্যাপও প্লে স্টোরে দেখা যায়নি।

এ মাসের শুরুতে মেট্রো কর্তৃপক্ষ গুগলকে চিঠি দিয়ে সমস্যা মেটানোর কথা জানান। তার পরে মেট্রোর সেই অ্যাপ প্লে স্টোরে ঠাঁই পেলেও তাতে পুরনো ছবিই ছিল। সমস্যা মেটাতে এসি রেকের ছবি সংবলিত নতুন আর একটি অ্যাপ চালু করে দেয় মেট্রো। এখন দু’টি অ্যাপ-ই মিলছে প্লে স্টোরে। মেট্রোর জি এম এ দিন জানান, বিষয়টি গুগল কর্তৃপক্ষের নজরে আনা হয়েছে। তাঁদের পুরনো অ্যাপ সরিয়ে নিতে বলা হয়েছে। 

মহড়া: ফের পরিষেবা শুরু করার আগে সুরক্ষা-বিধির বিষয়গুলি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। বুধবার, পার্ক স্ট্রিট স্টেশনে। ছবি: সুদীপ্ত ভৌমিক

ইতিমধ্যেই স্মার্ট কার্ডের বৈধতা বজায় রাখতে তা রিচার্জ করার সময়সীমা ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। এক বার রিচার্জ করালে স্মার্ট কার্ডের টাকার অঙ্ক এক বছর পর্যন্ত থেকে যায়। কিন্তু লকডাউনে ছ’মাসের বেশি মেট্রো না চলায় অনেকেরই কার্ডের মেয়াদ ফুরিয়ে গিয়েছে। মেয়াদ ফুরোলে জমা টাকাও আর মেলে না। ফলে কার্ড বাঁচাতে রিচার্জ করাটা বাধ্যতামূলক। ই-পাস এবং স্মার্ট কার্ড রিচার্জ— দু’টি সুবিধা একমাত্র মেট্রোর অ্যাপেই মিলবে। ফলে ওই অ্যাপ নিয়ে সমস্যা থাকলে যাত্রীদের ভোগান্তি অনিবার্য। 

আরও পড়ুন: আগামী সপ্তাহে মেট্রো চালু, কোথায় কীভাবে পাবেন ই-পাস

আরও পড়ুন: স্বাস্থ্য-বিধি মেনে চলতে পুজোর পদ্ধতিতেও বদল

এ দিকে, মেট্রোর জিএম এ দিন কবি সুভাষ থেকে পার্ক স্ট্রিট পর্যন্ত সব ক’টি স্টেশনের প্রস্তুতি খতিয়ে দেখেন। যাত্রীদের জন্য ২০ দফার একটি নির্দেশিকা তৈরি করেছে মেট্রো। তাতে মাস্ক পরা বা ভিড় না জমানোর নির্দেশের পাশাপাশি প্ল্যাটফর্ম বা অন্যত্র থুতু ফেলতেও নিষেধ করা হয়েছে। কামরা, এসক্যালেটর-সহ বিভিন্ন জায়গা স্পর্শ করতে বারণ করা হয়েছে। লিফটে একসঙ্গে তিন জনের বেশি উঠতেও না করা হয়েছে। বয়স্ক ও শিশুদের মেট্রোযাত্রা এড়িয়ে চলতে বলা হয়েছে।

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন