ফোন করে ডেকে নিয়ে গিয়ে ষোলো বছরের নাবালিকাকে গণধর্ষণের  অভিযোগ উঠল।

শনিবার সন্ধ্যায় ঘটনাটি ঘটেছে অশোকনগরে। রাতে মেয়েটি তিন যুবকের নামে থানায় অভিযোগ দায়ের করে। পুলিশ জানিয়েছে অভিযুক্তদের নাম সুরজ মণ্ডল, মন্টু মণ্ডল ও আলামিন মণ্ডল। রবিবার ভোরে পুলিশ মন্টু ও আলামিনকে মাটিয়াগাছা থেকে গ্রেফতার করেছে। মূল অভিযুক্ত সুরজ পলাতক। তার খোঁজে তল্লাশি চলছে।

জেলা পুলিশের এক কর্তা বলেন, ‘‘অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে গণধর্ষণ ও পকসো আইনে মামলা রুজু করা হয়েছে।’’ ধৃতদের রবিবার বারাসত জেলা আদালতে হাজির করানো হলে বিচারক ৫ দিন পুলিশি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন। মেয়েটির ডাক্তারি পরীক্ষা করানো হয়েছে অশোকনগর স্টেট জেনারেল হাসপাতালে। পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, হাড়োয়ার বাসিন্দা ওই মেয়েটির মামার বাড়ি অশোকনগরে। মাস পাঁচেক আগে সে মামার বাড়িতে এক অনুষ্ঠানে এসেছিল। পরিচয় হয় সুরজের সঙ্গে। তারপর থেকে ফোনে নিয়মিত কথাবার্তা হত। শুক্রবার মেয়েটি ফের মামার বাড়িতে বেড়াতে আসে। অভিযোগ, ‘বিশেষ দরকার’ বলে শনিবার সন্ধ্যায় ফোন করে সুরজ তাকে ডেকে পাঠায়। আমবাগানে দেখা হয় দু’জনের।   অভিযোগ, সেখানে সুরজের দুই বন্ধু মন্টু ও আলামিনও উপস্থিত ছিল। সেখানেই মেয়েটিকে সুরজ ধর্ষণ করে। বাকি দু’জন এলাকায় নজর রাখছিল। এলাকার মানুষের নজরে পড়ে যায় বিষয়টি। লোকজন তাড়া করলে তিন যুবক পালায়। পরে অভিযোগ পেয়ে দু’জনকে ধরে ফেলে পুলিশ।