কিছু দিন আগেই চলন্ত বাসের জানলায় হাত বার করে থাকায় হাত কাটা গিয়েছিল এক যাত্রীর। বুধবার চলন্ত বাসের জানলায় মাথা বার করে বসে থাকায় মৃত্যু হল এক ব্যক্তির। বুধবার দুপুর বারোটা নাগাদ ঘটনাটি ঘটেছে একবালপুর থানা এলাকার ডায়মন্ড হারবার রোডে। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম জানে আলম মিদ্যা (৬০)।

পুলিশ জানিয়েছে, ২৫৯ রুটের একটি বেসরকারি বাস এ দিন আক্রা থেকে ছেড়ে হাওড়া স্টেশন যাচ্ছিল। অভিযোগ, একবালপুরের কাছে ডায়মন্ড হারবার রোডে অন্য একটি বাসকে ওভারটেক করতে গিয়ে রাস্তার পাশে থাকা বাতিস্তম্ভে ধাক্কা মারে সেটি। মহেশতলার বাসিন্দা জানে আলম জানলা দিয়ে মাথা বার করে থাকায় বাতিস্তম্ভের সঙ্গে ধাক্কা লাগে তাঁরও। মাথায় গুরুতর আঘাত-সহ ওই যাত্রীকে এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন। পুলিশ এই ঘটনায় বাসচালককে গ্রেফতার করেছে। ধৃতের বিরুদ্ধে অবহেলা করে মৃত্যু ঘটানোর অভিযোগে মামলা রুজু করা হয়েছে।

পুলিশকে বাসটির যাত্রীরা জানিয়েছেন, শুরু থেকেই বাসটি বেপরোয়া গতিতে ছুটছিল। একবালপুরের কাছে ডায়মন্ড হারবার রোডে অন্য একটি বাসকে ওভারটেক করার চেষ্টা করছিল সেটি। 

বাসের মাঝমাঝি জানলার দিকের আসনে বসেছিলেন জানে আলম। স্থানীয় সূত্রের খবর, ওভারটেক করতে গিয়ে বাসটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি বাতিস্তম্ভে আড়াআড়ি ধাক্কা মারে। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, তখনই আঘাত লাগে জানে আলমের মাথায়। বাসের যাত্রীরা চিৎকার শুরু করার সঙ্গে সঙ্গে চালক বাস থামিয়ে দেন। পরে স্থানীয় বাসিন্দারা জড়ো হয়ে চালককে ধরে ফেলেন। পরে ওই চালককে পুলিশের হাতে তুলে দেন তাঁরা। লালবাজারের এক কর্তা বলেন, ‘‘চলন্ত বাসে যাত্রীদের সাবধানতা অবলম্বন করা উচিত। যাত্রীরা সাবধান হলে এই ধরনের দুর্ঘটনা এড়ানো যাবে।’’