টহলদারি পুলিশ ভ্যানটা এগিয়ে গিয়েছিল বেশ খানিকটা। কিন্তু, এক পুলিশের নজরে পড়ে যায় বিষয়টি। গাড়ি ফিরিয়ে এনে দেখা যায়, নর্দমার মধ্যে পড়ে রয়েছেন কেউ। তুলতে দেখা যায়, তাঁর গলার অর্ধেক কাটা। দেহ নিথর। মোবাইল ফোনের সূত্র ধরে পরিচয় মেলে ওই যুবকের। বৃহস্পতিবার রাতে কাঁকিনাড়া স্টেশন রোডের ঘটনা।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম মহম্মদ ইকবাল (২৮)। বাড়ি কাঁকিনাড়া ৫ নম্বর রেলওয়ে সাইডিং। তাঁর বাড়ির লোকেদের অভিযোগ, মহম্মদ রাজা নামে ইকবালের এক বন্ধু মাঝরাতে ফোন করে তাঁকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে গিয়েছিল। 

পুলিশ রাজাকে গ্রেফতার করেছে। ব্যক্তিগত গোলমালের জেরেই খুন বলে প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের ধারণা। পুলিশ জানিয়েছে, এই ঘটনায় আরও দু’জন যুক্ত বলে তারা জানতে পেরেছে। 

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ইকবাল পেশায় টোটো চালক। রাজার সঙ্গে তাঁর বন্ধুত্ব দীর্ঘদিনের। ইকবালের বাড়ির কাছাকাছিই বাড়ি তাঁর। সম্প্রতি কোনও বিষয় নিয়ে তাঁদের মধ্যে গোলমাল চলছিল। কিন্তু কী নিয়ে গোলমাল সেই বিষয়ে কিছু জানতে পারেননি তাঁর পরিবারের বাসিন্দারা।

বাড়ির লোকেরা জানান, রাত ১০টা নাগাদ বাড়ি ফেরেন ইকবাল। রাত সাড়ে ১১টা নাগাদ রাজা তাঁকে ফোন করে ডাকে। রাজা তাঁকে বলেছিল, রাতে তাঁর টোটো ভাড়া করে একজনকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে। ফোন পাওয়ার পরেই টোটো নিয়ে বেরিয়ে যান ইকবাল।

রাত বাড়লেও তিনি না ফেরায় ফোন করেন বাড়ির লোকেরা। কিন্তু ফোন বারবার বেজে বন্ধ হয়ে যায়। তার পরেই তাঁকে খুঁজতে বের হন পরিবারের লোকেরা। কিন্তু বিস্তর খোঁজাখুজির পরেও তাঁর সন্ধান পাননি তাঁরা। 

রাজার বাড়িতেও যান তাঁরা কিন্তু সেখানে গিয়ে রাজাকে পাননি তাঁরা। বাড়িল লোকেরা জানান, সন্ধ্যার পর আর বাড়ি ফেরেনি সে।

পুলিশ জানিয়েছে, রাত আড়াইটা নাগাদ ভাটপাড়া থানার পুলিশ ভ্যানে করে টহল দিচ্ছিল। সেই সময়ে কাঁকানাড়া রেল স্টেশনের কাছে একটি নর্দমার মধ্যে ইকবালকে পড়ে থাকতে দেখে। তুলে দেখা যায় তাঁর গলার নলি কাটা। সেখান থেকে বেশ কিছুটা দূরে পাওয়া যায় তাঁর টোটোটি। 

ইকবালের পকেটে তাঁর মোবাইলটি পায় পুলিশ। সেটিকে চালু করে তাঁর বাড়িতে ফোন করে পুলিশ। 

বাড়ির লোকেরা এসে দেহ শনাক্ত করেন। বাড়ির লোকের কাছ থেকে অভিযোগ পাওয়ার পরে তাঁর অন্য বন্ধুদের জিজ্ঞাসাবাদ করে রাজাকে ওই এলাকার একটি বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়। 

মাস দুয়েক আগে কাঁকিনাড়া স্টেশনে মুণ্ডু কেটে খুন করা হয় এক ফুচকা বিক্রেতাকে। দিন পনেরো পরে রেল স্টেশনে বোমা মেরে খুন করা হয় নদিয়ার এক যুবককে। বৃহস্পতিবার ফের খুন ওই একই এলাকায়। সব মিলিয়ে এলাকার বাসিন্দাদের মধ্যে আতঙ্ক 

ছড়িয়ে পড়েছে।