মদ বিক্রিতে বাধা দেওয়ায় মারধরের ঘটনা ঘটল মাটিয়ার কাহারপাড়ায়। শুক্রবার রাতে এই ঘটনায় দু’পক্ষের কয়েকজন মহিলা আহত হন। তৃপ্তি কাহারের অভিযোগের ভিত্তিতে পুলিশ কণিকা মণ্ডল এবং মিতালি কাহারকে গ্রেফতার করে। প্রকৃত অপরাধীদের না ধরে দুই নিরাপরাধকে ফাঁসানো হয়েছে, এই অভিযোগে এ দিন সন্ধ্যায় ঘণ্টাখানেক মাটিয়ায় অবরোধ করেন স্থানীয় মানুষজন।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, বেশ কিছু দিন ধরেই মাটিয়ার কাহারপাড়ায় মদ বিক্রিকে কেন্দ্র করে গণ্ডগোল চলছে। মারামারি। ভাঙচুরের ঘটনাও ঘটেছে। এলাকাবাসীর দাবি, যে-ই মদ বিক্রি করুক না কেন, তার বিরুদ্ধে সরব শান্তিপ্রিয় মানুষ। চোলাই, বাংলার নেশায় চুর হয়ে ফিরে বাড়িতে ঝামেলা করেন পুরুষ সদস্যেরা। রোজগারের টাকা মদের পিছনে উড়িয়ে  সংসার চালানোর টাকা থাকে না। মহিলা, শিশুদের উপরে অত্যাচারও করেন। বহু বাড়িতে ছোটদের পড়াশোনা বন্ধ হওয়ার জোগাড়।

মদ বিক্রি বা খাওয়ায় বাধা দিতে গেলে দুষ্কৃতীরা মদ ব্যবসায়ীদের হয়ে হুমকি দেয় বলে অভিযোগ। দুষ্কৃতীদের উপদ্রবে সন্ধ্যার পরে মহিলারা বাইরে বেরোতেও ভয় পান। পুলিশ জানায়, শুক্রবার রাতে কাহারপাড়ার কয়েকজন মহিলা তৃপ্তি কাহারের নেতৃত্বে প্রতিবাদ মিছিল করেন। মদ বিক্রেতারা তাঁদের উপরে হামলা চালায় বলে অভিযোগ। তিন মহিলা আহত হন। তৃপ্তিদেবীর দাবি, ‘‘দুষ্কৃতীরা আমাদের উপরে চড়াও হয়ে গালিগালাজ, মারধর করেছে।’’ মদ বিক্রেতাদের বাড়ির মহিলাদেরই হামলায় সামনের সারিতে ছিলেন বলে তাঁর দাবি।

ধৃতদের অবশ্য দাবি, এলাকায় অনেকেই মদ বিক্রি করে। তৃপ্তি কাহারের বাড়ির লোকও তাতে জড়িত। কিছু দিন আগে তাঁরা প্রতিবাদ করেছিলেন। সে সময়ে তৃপ্তির বাড়ির লোকেজনকে পুলিশ ধরেছিল। মিতালিদের পাল্টা দাবি, তাঁদের মারধর করে মিথ্যা অভিযোগ করা হচ্ছে।