• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

‘দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচির প্রচারে বর্ধমানে এক সপ্তাহের পদযাত্রা তৃণমূলের

TMC
তৃণমূলের পদযাত্রা। —নিজস্ব চিত্র

এক সপ্তাহ আগেই বাঁকুড়া থেকে ‘দুয়ারে দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচির ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পূর্ব বর্ধমানে তার প্রচার শুরু করে দিল তৃণমূল। বর্ধমান জেলা সভাধিপতি দেবু টুডুর নেতৃত্বে সাত দিন ধরে জেলায় পদযাত্রার কর্মসূচি চলছে।

রাজ্য সরকারের ১১টি প্রকল্পের সুবিধা থেকে একটি পরিবারও যাতে বঞ্চিত না হয়, তা সুনিশ্চিত করতে মঙ্গলবার থেকে শুরু হচ্ছে ‘দুয়ারে দুয়ারে সরকার’ কর্মসূচি। ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত এই কর্মসূচি চলবে। শুরুর আগেই রাজ্য সরকার ১০ বছরে আদিবাসী সমাজের জন্য রাজ্য সরকারের উন্নয়নমূলক প্রকল্পগুলি সপ্তাহব্যাপী পদযাত্রার মাধ্যমে তুলে ধরল জেলা তৃণমূল।

জেলার জঙ্গলমহল আউশগ্রাম ২ নম্বর ব্লক থেকে এই পদযাত্রা শুরু হয়েছিল। তাতে  আদিবাসী মহিলা-পুরুষ ও জনপ্রতিনিধিরা অংশ নেন। বিভিন্ন ব্লক ঘুরে সোমবার পদযাত্রা পৌঁছয় জামালপুর ব্লকে। সাত দিন ধরে ১৭৭ কিলোমিটার পথ ও অজস্র গ্রাম ছুঁয়ে পদযাত্রা পদযাত্রা শেষ হয় জামালপুরের আদিবাসী মহল্লা ঘুরে। আদিবাসী সমাজের থেকে উঠে আসা বিভিন্ন স্তরের বিশিষ্ট মানুষজন, লোকশিল্পীরা ছাড়াও সাধারণ আদিবাসী পরিবারের বহু মানুষ ধামসা-মাদল সহযোগে পদযাত্রায় অংশ নিয়েছেন।

আরও পড়ুন: শিলিগুড়িতে অশোক, ফিরহাদ এক মঞ্চে, কটাক্ষ দিলীপের

দেবু টুডু বলেন, ‘‘রাজ্য সরকার ‘জহার থেকে জাহের’ সর্বত্র পৌঁছে দিয়েছে উন্নয়ন। আদিবাসী সম্প্রদায়ের মানুষজন সরকারের উন্নয়ন প্রকল্পগুলির সুবিধা ও  সুফল পাচ্ছেন। আদিবাসী অধ্যুসিত এলাকার  উন্নয়ন করা ছাড়াও শিক্ষা, চিকিৎসা-সহ সব ক্ষেত্রে উন্নতি ঘটেছে।’’

আরও পড়ুন: সারদা-নারদা এবং বিজেপি নিয়ে কল্যাণের মন্তব্যে ক্ষুব্ধ অপরূপা 

এত উন্নয়নের পরেও মানুষের দুয়ারে পৌঁছনোর এই কর্মসূচি কেন? দেবুর জবাব, ‘‘কাজ করার পরেও মানুষের কিছু প্রশ্ন থাকতে পারে। তাই এই কর্মসূচি। মঙ্গলবার থেকে জেলা প্রশাসনের কর্তারা মানুষজনের সমস্যার কথা শুনে তার চটজলদি সামাধান করবেন।’’

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন