• নিজস্ব সংবাদদাতা
সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে

মুম্বই রোডে আক্রান্ত এএসআই

ASI
আহত: এএসআই। নিজস্ব চিত্র

জাতীয় সড়ক মুম্বই রোডের দু’ধারে ট্রাক দাঁড় করানো যে বেআইনি, সে ব্যাপারে বারবার সতর্ক করে পুলিশ। তা সত্ত্বেও দিনের পর দিন উলুবেড়িয়ায় ওই সড়কের দু’ধারে ট্রাক দাঁড় করান চালকেরা। রবিবার দুপুরে এই বেআইনি পার্কিং রুখতে গিয়ে আক্রান্ত হলেন অমিত দাস নামে উলুবেড়িয়া ট্রাফিক পুলিশের এক এএসআই (অ্যাসিস্ট্যান্ট সাব-ইনস্পেক্টর)। রড, লাঠি নিয়ে কিছু ট্রাক-চালক তাঁর উপরে চড়াও হন বলে অভিযোগ। ঘটনাস্থল থেকে দু’জনকে আটক করে পুলিশ।

অমিতবাবুর মাথা ফাটে। তাঁকে উলুবেড়িয়ার একটি নার্সিংহোমে ভর্তি করানো হয়েছে। হাওড়া (গ্রামীণ) জেলা পুলিশের এক কর্তা জানান, যে দু’জনকে আটক করা হয়েছে, তাঁরা ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছিলেন কিনা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। দু’টি ট্রাক ধরা হয়েছে। যে সব ট্রাক-চালক পালিয়েছে তাদের সন্ধানে তল্লাশি চলছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, এ দিন বেলা সাড়ে ১০টা নাগাদ রঘুদেবপুরের কাছে মুম্বই রোডের ধারে বেআইনি পার্কিংয়ের বিরুদ্ধে অভিযান চালাচ্ছিল পুলিশ।  সেই সব ট্রাকের চালকদের কাছ থেকে জরিমানা আদায় করছিলেন এএসআই অমিতবাবু। পুলিশের অভিযোগ, বেশ কয়েকজন ট্রাক-চালক হঠাৎ অমিতবাবুকে আক্রমণ করেন। ঘটনাস্থল থেকে সিভিক ভলান্টিয়াররা দু’জনকে ধরে ফেলেন।

ঘটনাস্থলে গিয়ে অভিযুক্তদের দেখা মেলেনি। তবে, নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অন্য কয়েক জন চালকের অভিযেোগ, এই এলাকায় যখন-তখন পুলিশ তাঁদের হেনস্থা করা হয়। রাস্তার ধারে ট্রাক রেখে কোনও ধাবায় খেতে ঢুকলেও রেহাই মেলে না। এই অভিযোগ অবশ্য অস্বীকার করেছে পুলিশ। হাওড়া (গ্রামীণ) জেলা পুলিশের এক কর্তা জানান, মুম্বই রোডের ধারকে অনেক ট্রাক-চালক পার্কিংয়ের জায়গা ভাবেন। যত্রতত্র রাস্তার ধারে ট্রাক দাঁড়িয়ে পড়ায় দুর্ঘটনা ঘটে। মুম্বই রোডের ধারে বেআইনি ভাবে ট্রাক দাঁড় করানো কোনও ভাবেই বরদাস্ত করা হবে না।  

সবাই যা পড়ছেন

সব খবর প্রতি সকালে আপনার ইনবক্সে
আরও পড়ুন

সবাই যা পড়ছেন

আরও পড়ুন